কুমিল্লার পার্কগুলো খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ

0

দীর্ঘদিন পার্কগুলো বন্ধ থাকায় বিনিয়োগ ঝুঁকি এবং ব্যাংক দেনার পরিমান বাড়ায় দুশ্চিন্তায় পর্যটক মালিকরা। প্রতি বছর ঈদের ছুটিতে কুমিল্লার পর্যটক কেন্দ্র কোটবাড়ি এলাকা জমজমাট থাকলেও এবার পার্কগুলোতে দেখা গেছে ভিন্ন চিত্র শুনশান নিরবতা। করোনার কারনে দীর্ঘ বন্ধে এ শিল্পের সাথে জরিত শ্রমিকরাও বেকার হয়ে পড়েছে। ঘর বন্ধি মানুষের মানুষিক স্বাস্থ্য বিকাশে পার্কগুলো খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন পার্ক কর্তৃপক্ষ।

ম্যাজিক প্যারাডাইস, শালবন বিহারসহ কুমিল্লায় সরকারি-বেসরকারি অন্তত ১০টি বিনোদন কেন্দ্র রয়েছে। দীর্ঘ বন্ধে বিকল হতে বসেছে পার্কের রাইডগুলো। অন্যান্য বছরের মত এবারও ঈদ মৌসুমে পর্যটকদের ভিড়ে ব্যস্ত থাকার কথা ছিল পার্কের শ্রমিকদের। করোনা পরিস্থিতিতে পার্ক বন্ধ থাকায় উল্টো কর্মহীন মানবেতর জীবন-যাপন করছেন শ্রমিকরা।

দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় পার্কগুলোর বিশাল বিনিয়োগ ঝুঁকির মুখে পড়েছে। পাশাপাশি বৃদ্ধি পাচ্ছে ব্যাংকে দেনার পরিমান। বিশ্বের অন্যান দেশের মত দীর্ঘদিন ঘর বন্ধি মানুষের, মানুষিক স্বাস্থ্য বিকাশে, স্বাস্থ্য বিধি মেনে পার্কগুলো খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ।হাজার হাজার শ্রমিকের বেকারত্ব দূর করার পাশাপাশি বিনোদন শিল্পের বড় এই সেক্টরকে টিকিয়ে রাখতে পার্কগুলো খুলে দিতে সরকারের বিশেষ নজরদারি চেয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন