স্ত্রীর প্রতি ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে বাগেরহাটে চন্দ্রমহল

0

স্ত্রীর প্রতি ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে বাগেরহাটের রনজিতপুরে চন্দ্রমহল নামে একটি দর্শনীয় স্থাপনা তৈরি করেছেন স্থানীয় এক ব্যবসায়ী। চন্দ্রমহলকে ঘিরে নির্মাণ করা হয়েছে ইকোপার্ক। এতে প্রতিদিন বেড়াতে যাচ্ছে দেশ-বিদেশের হাজারো পর্যটক।

রনজিতপুরে ৩৫ একর জমির ওপর এই চন্দ্রমহল ইকোপার্কটি তৈরি করেছেন বাগেরহাটের গার্মেন্টস ব্যবসায়ী সৈয়দ আমানুল হুদা সেলিম। এই দর্শনীয় স্থাপনাটি তিনি বানিয়েছেন স্ত্রী নাসিমা হুদা চন্দ্রার প্রতি ভালোবাসার নিদর্শন হিসেবে।
দোতলা চন্দ্রমহলে প্রবেশ করতে হয় পানির নীচ দিয়ে তৈরি সুড়ঙ্গ পথে। মহল জুড়ে রয়েছে নানা স্থাপত্যশৈলীসহ, পূর্ব-পুরুষের ব্যবহৃত জিনিসপত্র, ডাকটিকেট, তলোয়ারসহ আকর্ষণীয় অনেক কিছু। তাই সুন্দরবন যাওয়ার পথে খুলনা-মংলা মহাসড়কের পাশে ইকোপার্কটি দেখতে ভীড় জমান অসংখ্য দর্শনার্থী।

এখানে রয়েছে হরিণ, কুমির, বানর ও পাখিসহ বিভিন্ন জীবজন্তুর প্রতিকৃতি ও ভাস্কর্য। আছে বিলুপ্ত হওয়া রূপসা-বাগেরহাট রেল লাইনের প্রতিকৃতিও।
ইকোপার্কে আরো আছে ছয়শ নারিকেল গাছসহ নানা প্রজাতির গাছ, পিকনিক স্পট ও বেশ ক’টি পুকুর। এছাড়া পুকুরে তৈরি ময়ূরপঙ্খী নৌকার ওপর ভাসমান মঞ্চ নজর কাড়ে সবার। তবে, চন্দ্র মহলে যাওয়ার ভাঙ্গা রাস্তাটি মেরামতের দাবি পর্যটকদের।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন