শীর্ষস্থান আরো মজবুত করলো আবাহনী

0

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে মাশরাফি বিন মোর্ত্তজার বিধ্বংসি বোলিং আর এনামুল বিজয়ের সেঞ্চুরিতে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবকে ৪৭ রানে হারিয়ে শীর্ষস্থান আরো মজবুত করলো আবাহনী। টুর্নামেন্টে এখনো অপরাজিত তারা। অন্যম্যাচে, প্রাইম দোলেশ্বরকে ৫৫ রানে হারিয়ে, শেখ জামালকে টপকে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে উঠে এলো লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। এবং ব্রাদার্স ইউনিয়নকে ২ উইকেটে হারিয়েছে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স।

বিকেএসপি’র ৪নং মাঠে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামে ঢাকা আবাহনী। ওপেনার আনামুল হক বিজয় খেলেন দূর্দান্ত ইনিংস। তুলে নেন সেঞ্চুরি। তার ১১৬ রান, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের ৪৯ আর মেহেদি হাসান মিরাজের ৩৪ রানে ভর করে ৭ উইকেটে ২৭০ রান সংগ্রহ করে আবাহনী লিমিটেড।

জয়ের জন্য ২৭১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নামা শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব মাশরাফির পেস তাণ্ডবের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি। মিডল অর্ডারে নুরুল হাসান সোহানের ব্যাট, জয়ের স্বপ্ন দেখালেও সানজামুলের স্পিন ঘূর্ণিতে ব্যক্তিগত ৮৩ রানে আউট হলে—শেখ জামালে সেই স্বপ্ন ভঙ্গ হয়। শেষ পর্যন্ত ২২৩ রানে অলআউট হয়ে মৌসুমের দুর্দান্ত আবাহনীর বিপক্ষে দ্বিতীয় হারের স্বাদ পায় শেখ জামাল। টাইগারদের ওয়ানডে দলপতি মাশরাফি নেন ৫ উইকেট।

মিরপুরে, প্রাইম দোলেশ্বের বিপক্ষে টস হেরে আগে ব্যাট করে লিজেন্ড অব রূপগঞ্জ। ওপেনার আব্দুল মজিদ, নাইম ইসলাম ও মুশফিকুর রহিমের অর্ধশতকে ৭ উইকেটে ২৭২ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর পায় রূপগঞ্জ। জবাবে, ৮০ রানের মধ্যেই প্রথম চার ব্যাটসম্যান লিটন দাস, ইমতিয়াজ, মার্শাল আয়ুব ও ফরহাদ হোসেনকে হারিয়ে চাপে পড়ে দোলেশ্বের। ফরহাদ রেজার ২৫, শরিফুল্লাহ’র ৪১ ও আরাফাত সানির ২৮ রানে শেষ পর্যন্ত ২১৭ রানে থামে তাদের ইনিংস।

বিকেএসপির ৩ নং গ্রাউন্ডে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের বিপক্ষে টস হেরে আগে ব্যাট করে ৫ উইকেটে ২৭৩ রানের সংগ্রহ পায় ব্রাদার্স ইউনিয়ন। ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দিকী ৪৩ ও ইয়াসীর আলি ৫৪ রান করেন। তবে, মিডল অর্ডারে দাস খেলেন ১১২ রানের হার না মানা দূর্দান্ত ইনিংস। ২৭৪ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৫ বল আর ২ উইকেট হাতে রেখেই জয় নিশ্চিত করে গাজী গ্রুপ। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৭১ রান করেন গুরকিরাত সিং। এছাড়াও ইমরুল কায়েস ৬৫ ও মুমিনুল হক করেন ৫৭ রান।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন