লাখো মানুষের পদচারণায় মুখর ছিলো অমর একুশে গ্রন্থ মেলা

0

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে লাখো মানুষের পদচারণায় মুখর ছিলো অমর একুশে গ্রন্থ মেলা। দুপুর গড়িয়ে বিকেল আর সন্ধ্যা হতেই বইপ্রেমীদের উপচেপড়া ভীড় পরিণত হয় জনসমুদ্রে। যাতে তীল ধারণের ঠাঁই ছিলো না। ভাষা শহীদদের আত্মদানের চেতনাকে নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিয়ে, একটি উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনের প্রত্যয় জানান বইমেলায় আসা এসব মানুষ।

বিশ্বে মাতৃভাষার জন্য প্রাণ দেয়ার ইতিহাস একমাত্র বাঙালি জাতির। বাঙালির এ বীরত্বপূর্ণ ঘটনাকে স্মৃতিপটে ধারণ করে রাখতেই ফেব্রুয়ারির মাসব্যাপী এই মেলার নাম- অমর একুশে গ্রন্থমেলা। আর বইমেলায় এসে বই কেনা এখন ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপনেরই অংশ। তাইতো, শহীদ বেদীতে পুষ্পঅর্পণ শেষে সবার গন্তব্য বাংলা একাডেমির গ্রন্থমেলার দিকে।

দুপুর গড়িয়ে বিকেল হতেই ভিড় বাড়তে থাকে মেলা প্রাঙ্গণে। এক পর্যায়ে, শহীদ মিনারের এ জনস্রোত বাংলা একাডেমি আর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে পরিণত হয় জনসমুদ্রে। যুবক-বৃদ্ধা সকলেই এসেছেন মেলায়। বাদ পড়েনি মায়ের কোলের ছোট্ট শিশুটিও।

জাতির মহান এ দিনে গ্রন্থমেলা ছিল একুশের ছোঁয়ায় প্রাণবন্ত। বেশিরভাগ স্টল সাজানো হয় একুশ আর স্বাধীনতার ইতিহাস নিয়ে লেখা বইয়ে। স্থিতিশীল ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে নতুন প্রজন্মকে একুশ ও স্বাধীনতার চেতনা বুকে ধারণ করার আহ্বান জানান লেখক-প্রকাশকরা।

ছোট-বড় প্রতিটি স্টলের সামনেই ছিলো তীব্র ভিড়। বিক্রিও ছিলো অন্যদিনের তুলনায় অনেক বেশি। এদিন মেলায় নতুন বই এসেছে ৩৯০টি। এ নিয়ে এবারের মেলায় নতুন বই প্রকাশ হলো ৩ হাজার ৩৫৬টি।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন