রাজশাহী বিভাগে আশঙ্কাজনকহারে ঝরে পড়ছে শিক্ষার্থী

1

রাজশাহী বিভাগে আশঙ্কাজনকহারে ঝরে পড়ছে শিক্ষার্থী। নানা কারণে মাধ্যমিক পাসের আগেই ছিটকে পড়ছে তারা। বোর্ড কর্তৃপক্ষ অবশ্য বলছে, নতুন স্কুলগুলো ভুয়া শিক্ষার্থীর নিবন্ধন করায় খাতা কলমে ঝরে পড়ার হার বেশি দেখাচ্ছে। বিশ্লেষকদের মতে, ঝরে পড়া ঠেকাতে স্কুলভিত্তিক মনিটরিং কমিটি গঠন জরুরি।

উপবৃত্তি ও বিনামূল্যে বইসহ শিক্ষার্থীদের নানা সুবিধা দিয়ে যাচ্ছে সরকার। এরপরও রাজশাহী বিভাগের আট জেলায় ধরে রাখা যাচ্ছে না শিক্ষার্থী। শিক্ষা বোর্ডের তথ্য বলছে, ২০১৭ সালে নবম শ্রেণীতে নিবন্ধনভুক্ত হয়েছিল দু’লাখ ৬ হাজার ৯৭০ জন শিক্ষার্থী। কিন্তু এদের মধ্যে ২০১৯ সালের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে এক লাখ ৭৯ হাজার ৯০৯জন। এক শিক্ষাবর্ষেই ঝরে গেছে ২৭ হাজারেরও বেশি।

এদিকে, বিশ্লেষকরা জানাচ্ছেন, কর্মের নিশ্চয়তা পেতে সাধারণ শিক্ষা ছেড়ে কারিগরির দিকে চলে যাচ্ছে অনেকেই। এর বাইরে, দারিদ্র্যও বড় কারণ।

তবে এই ঝরে পড়া রোধে উপ-বৃত্তি বাড়ানোর পাশাপাশি স্থানীয়ভাবে মনিটরিং টিম গঠনেরও পরামর্শ দিচ্ছেন তারা।

গেলো চার বছরে রাজশাহী বিভাগে স্কুল বেড়েছে ৩৩টি। আর এই সময়ে শিক্ষার্থী বেড়েছে সাড়ে ৩৪ হাজার। তবে সব কিছু ছাপিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো এবারও পাসের হারে সারাদেশে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড।

শেয়ার করুন।

একটি মন্তব্য

  1. মাদক সমস্যা এর অন্যতম কারণ। সাধারণত দেখা যায় মাদকের ছোবলে পরিবার এর উপার্জনকারী লোক অচল হয়ে যায়। যার কারণে পরিবার আর্থিকভাবে দড়াতে পারে না। যার প্রভাব পরে জীবনযাত্রায়।মৌলিক প্রয়োজনগুলো পূরণকরা কঠিন হয়।সমাজ থেকে মাদক নির্মুল হলে ৫০ ভাগ সমস্যা কমে যাবে।

উত্তর দিন