যশোরে ভ্যাট আদায় নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছে, ব্যবসায়ী আর কাস্টমস কর্তৃপক্ষের

0

যশোরে ভ্যাট আদায় নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছে, ব্যবসায়ী আর কাস্টমস কর্তৃপক্ষের। আগের মতো ব্যবসায়ীরা বছর শেষে প্যাকেজ ভ্যাট পরিশোধ করতে চাইলেও, মানতে চাইছে না কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। প্রতিমাসে ভ্যাট জমা না দেয়ায় এরই মধ্যে অনেক ব্যবসায়ীর হিসাবের খাতা জব্দ করে মামলা করেছে তারা। প্রতিবাদে ব্যবসা বন্ধ রেখে আন্দোলনের হুমকি দিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

যশোরে দীর্ঘদিন ধরে বছরে নির্ধারিত প্যাকেজ ভ্যাট দিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করছেন ব্যবসায়ীরা। সম্প্রতি প্রতিমাসে ভ্যাট পরিশোধসহ এসিআর মেশিন কিনতে চাপ দিচ্ছে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। এতে সমস্যায় পড়ছেন ব্যবসায়ীরা। কিন্ত এ নিয়ম না মানায় অনেক ব্যবসায়ীর খাতাপত্র জব্দসহ মামলার হুমকি দেয়া হচ্ছে। এতে ক্ষুদ্ধ সাধারণ ব্যবসায়ীরা।

কাস্টমস কর্তৃপক্ষের আরোপিত নিয়মে সবচে’ বেশি বেকায়দায় পড়েছেন স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা। তারা বলছেন, সরকার নির্ধারিত ৫ শতাংশ ভ্যাট দিতে চায় না ক্রেতারা। এতে বড় ধরণের লোকসান গুণতে হচ্ছে তাদের।তারওপর রয়েছে কাস্টমস কর্তৃপক্ষের চাপ।

কাস্টমসের কড়াকড়িতে বেকায়দায় পড়েছেন বিসিকের ব্যবসায়ীরাও। তারাও বলছেন, প্রতিমাসে ভ্যাট দিয়ে ব্যবসা চালানো তাদের পক্ষে সম্ভব নয়। তবে এই ব্যবসায়ি নেতা বলছেন, কাস্টমস কর্তৃপক্ষের আলোচনার মাধ্যমেই সন্তোষজনক সমাধান সম্ভব। আর কাস্টম কর্তৃপক্ষ বলছে, নিয়মানুযায়ী প্রতি মাসেই ভ্যাট পরিশোধ করতে হয়। যশোরে বিভিন্ন শ্রেণির প্রায় সাড়ে ৩ হাজার ব্যবসায়ী নিয়মিত ভ্যাট দিয়ে থাকেন।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন