ভারত থেকে আসা মাদকের তালিকায় এবার যোগ হয়েছে ইয়াবা

0

হেরোইন ও ফেনসিডিলের পর সীমান্ত পথে ভারত থেকে আসা মাদকের তালিকায় এবার যোগ হয়েছে ইয়াবা। সাম্প্রতিক দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের বিভিন্ন সীমান্ত পথে ভারত থেকে বাংলাদেশে পাচারকালে ইয়াবার বেশ কিছু চালান আটক হওয়ার ঘটনা ভাবিয়ে তুলেছে বিজিবিকে। তাই এ বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়ে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফকে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে তারা। বিএসএফও সীমান্ত টহলের ক্ষেত্রে আরো কঠোর নজরদারির প্রতি গুরুত্বারোপ করতে চায়।

গত ৩ জানুয়ারি চাঁপাইনবাবগঞ্জ সীমান্তের লক্ষ্মীপুর চর থেকে সাত হাজার পিস ইয়াবাসহ মাদক কারবারি শরিফুল ইসলামকে আটক করে বিজিবি। জিজ্ঞাসাবাদে শরিফুল স্বীকার করেছে, এসব ইয়াবা ভারত থেকে এসেছে। এছাড়া গত বছর ২ সেপ্টেম্বর চাঁপাইনবাবগঞ্জের চরহাসানপুর সীমান্তের গাইপাড়ায় অভিযান চালিয়ে যে ১০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয় সেটার চালানও এসেছিল ভারত থেকে। মিয়ানমারে তৈরি ইয়াবা রুট বদল করে ভারতের বিভিন্ন রাজ্য পাড়ি দিয়ে সীমান্ত পথে বাংলাদেশে আসছে, নাকি ভারতেই কারখানা গড়ে উঠেছে তা এখনো নিশ্চিত নয়। তবে এখন ভারত থেকে ইয়াবা ঢুকছে সেটা নিশ্চিত হয়েছেন বিজিবি কর্মকর্তারা। সেক্টর কামন্ডার পর্যায়ের বৈঠকে ইয়াবার বিষয়ে এরই মধ্যে বিএসএফের কাছে উদ্বেগের কথা জানিয়েছে বিজিবি।

এদিকে বিএসএফ বলছে, সীমান্ত অপরাধের সঙ্গে দু’দেশেরই দুস্কৃতিকারীরা জড়িত-এমন তথ্য রয়েছে তাদের কাছে।

রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের বেশ কিছু এলাকার সীমান্ত নদীপথ হওয়ায় কাঁটাতারের বেড়া দিতে পারে নি ভারত। দুর্বৃত্তরা নদীপথ ব্যবহার করেই অবৈধভাবে অস্ত্র ও মাদকসহ বিভিন্ন জিনিস আনছে বাংলাদেশে। তাই সীমান্ত সুরক্ষায় যৌথটহল দেবে বিজিবি এবং বিএসএফ।

ইয়াবার জন্য মিয়ানমার সীমান্তই আলোচিত রুট। তবে এখন মাদকের বিরুদ্ধে সরকারের জিরো টলারেন্স নীতির কারণে কক্সবাজার সীমান্তে কড়াকড়ি। তাই বাংলাদেশের বাজার হাত ছাড়া না করতে ভারতীয় সীমান্ত ব্যবহার হচ্ছে কি না- তাও খতিয়ে দেখছে আইনশৃংখলা বাহিনী।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন