ব্রাহ্মণবাড়িয়া এখন পোস্টারের শহর

0

ব্রাহ্মণবাড়িয়া এখন পোস্টারের শহর। প্রতিটি সড়ক-মহাসড়ক ও অলি-গলিতে নানা রঙের পোষ্টার ছেয়ে গেছে । আর সেই সাথে যত্রতত্র নানা রকম দেওয়াল লিখন ও বিলবোর্ডতো রয়েছেই । রাতের আধারেই সাটানো হয় এ সব পোস্টার। এদিকে, পোস্টার সাটানো নিয়ন্ত্রণে যে আইন আছে তা রয়ে গেছে কাগজে কলমেই।

কোথায় নেই পোষ্টার, বিলবোর্ড ও দেওয়াল লিখন! বাসস্থান, অফিস, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ব্যবসাকেন্দ্র, শিল্প কারখানা, দোকান থেকে শুরু করে দেয়াল, বেড়া, গাছ, বিদ্যুতের খুটি, খাম্বা, সড়ক বিভাজক, ব্রীজ, কালভার্ট কিংবা সড়কের উপরিভাগ সব জায়গায়ই পোষ্টার, লিখন আর বিলবোর্ডে ভরা।  বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সংগঠন, প্রতিষ্ঠান ও কোচিং সেন্টার তাদের প্রচার প্রচারণার অন্যতম প্রধান মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে যত্র তত্র পোষ্টার লাগানো, বিলবোর্ড সাঁটা আর দেয়াল লিখনকে। রাতের আঁধারে মালিকের কোন অনুমতি ছাড়াই যার-তার দেওয়ালের উপর চলছে এসব কর্মকাণ্ড। দেয়াল লিখন ও পোস্টার লাগানো-নিয়ন্ত্রণ আইনে লিখন বা পোস্টার লাগানো নিষেধ থাকলেও কেউই তা মানছেন না।

অনিয়ন্ত্রিত পোষ্টার, বিলবোর্ড ও দেওয়াল লিখন যেমনি পথচারীর নিয়মিত বিরক্তির সৃষ্টি করছে তেমনি নগরীর সৌন্দর্য নষ্ট করছে।এদিকে,দেয়াল লিখন পোস্টারিং-এ বিজ্ঞাপন হারাচ্ছে স্থানীয় পত্রিকাগুলো। ফলে অনেকটাই প্রাণহীন ভাবে বেঁচে আছে এসব পত্রিকা। তবে দ্রুতই এসব বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস পৌরসভা ও জেলা প্রশাসনের। দেয়াল লিখন ও পোস্টার লাগানো নিয়ন্ত্রণ আইন সম্পর্কে জণগণকে সচেতন করার পাশাপাশি দোষিদের শাস্তি দেয়ার দাবি শহরবাসীর।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন