পালিয়ে আসাদের মধ্যে অন্তত রোহিঙ্গা ৭০ ভাগই শিশু

0

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসাদের মধ্যে অন্তত রোহিঙ্গা ৭০ ভাগই শিশু। উখিয়া ও টেকনাফের বিভিন্ন শরণার্থী ক্যাম্পে আশ্রয় নেয়া এসব শিশু দিনভর থাকে শুধু খাবারের সন্ধানেই। এদের মধ্যে অনেকেই আবার বাবা-মা হারা। চোখের সামনেই দেখেছে, হত্যাসহ বর্বর নির্যাতনের ভয়ংকর দৃশ্য। তাই তারা মানসিকভাবে এখনো ট্রমায় ভুগছে। আবার অনেক শিশুই পড়াশোনা করতো নিজ দেশে। এখন আর সেই সুযোগ পাচ্ছে না।

কথা ছিল এই বয়সে ছুটোছুটি, হৈ চৈ আর বইখাতা নিয়ে স্কুলে যাওয়ার। কিন্তু যেখানে থাকা-খাওয়ার নিশ্চয়তা তো দুরের কথা, জীবনটাই হাতের মুঠোয় নিয়ে ছুটে বেড়াতে হয়, সেখানে পড়াশোনাতো দূরের কথা । যদিও ওদের এখনো বুঝে ওঠার বয়স হয় নি, কোনপথে যাচ্ছে ভবিষ্যৎ…। তাই শত বিপদের মাঝেও এমন দুরন্তপনায় মেতে ওঠে ওরা।

এসব শিশুর অনেকেই পড়াশোনা করতো। কেউ ছিল প্রাইমারিতে, কেউ বা আবার হাইস্কুলে। কিন্তু বাংলাদেশে পালিয়ে আসার পর সে সুযোগ এখন বন্ধ।

যদিও আগে আসা রোহিঙ্গা শিশুদের জন্য ১৮২টি স্কুল স্থাপন করেছে ইউনিসেফ। স্কুলগুলোতে বাংলা, ইংরেজি, গণিত, বার্মিজ, বিজ্ঞান এবং মানবিক বিষয়ে শিক্ষা দেয়া হচ্ছে।

শিশুদের জন্য প্রতিটি স্কুল তিন শিফট চালানো হয়। তবে আগামী বছরের মধ্যে আরো দুই লাখ শিশুকে শিক্ষা কার্যক্রমের আওতায় আনার উদ্যোগ নিয়েছে ইউনিসেফ- জানালেন প্রকল্প বাস্তবায়নকারী কর্মকর্তা।

তবে নির্যাতনের মুখে পালিয়ে আসা এসব শিশু যাতে সব কষ্ট ভুলে স্বাভাবিক পরিবেশেই বড় হয়- এজন্য সব ধরনের সব ব্যবস্থা নেয়া হবে- বলছেন এই কর্মকর্তা।

শেয়ার করুন।