দেশ জুড়ে অব্যাহত শৈত্য প্রবাহ কমতে শুরু করলেও কমেনি শীতের প্রকোপ

0

দেশ জুড়ে অব্যাহত শৈত্য প্রবাহ কমতে শুরু করলেও কমেনি শীতের প্রকোপ। তবে, তীব্র না হলেও তিন-চার দিনের ব্যবধানে আবারও শৈত্য প্রবাহের আশংকা করছেন আবহাওয়াবিদরা। তাই চলতি মাসের বেশিরভাগ সময় থাকতে পারে শীতের প্রভাব।

চুয়াডাঙ্গায় টানা ন’দিন ধরে অব্যাহতে শীতের কারণে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। রাস্তার ধারে খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারনের চেষ্টা করছেন স্থানীয়রা। বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধরা বেশি কষ্ট পাচ্ছেন ।

কুড়িগ্রামে ঘন কুয়াশা, কনকনে ঠান্ডা ও উত্তরীয় হিমেল হাওয়া অব্যাহত থাকায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে পুরো জনপদ। দিনের বেশিরভাগ সময় সূর্যের দেখা না মেলায় দিনে-রাতে সমান তাপমাত্রা থাকছে।

নীলফামারীতে ঘন কুয়াশার সাথে হিমেল বাতাস চরম দুর্ভোগে ফেলেছে সাধারণ মানুষকে। সেই সাথে কয়েকদিন থেকে সূর্যের দেখা না মেলায় স্থবিরতা নেমে এসেছে জনজীবনে। সেইসঙ্গে হাসপাতালগুলোতে বেড়েছে শীতজনিত রোগীর সংখ্যা।

পঞ্চগড়ে টানা কয়েক দিনের শীতের ঠান্ডায় স্থবির হয়ে গেছে জন জীবন। ঠান্ডা নিবারণের করছে খরখুটো জ্বালিয়ে। অনেকে আবার ফুটপাতের গরম কাপরের দোকান গুলোতে ছুটছে।

পাবনায় ঘন কুয়াশার কারনে দিনের আলোতেই সড়ক-মহাসড়কে হেডলাইট জ্বালিয়ে ধীরগতিতে চলছে যানবাহন। জরুরী প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের হচ্ছে না মানুষ।

এছাড়া নড়াইল, মেহেরপুর, ঝালকাঠী ও ফরিদপুর’সহ সারাদেশে ঘন কুয়াশা, কনকনে ঠান্ডার কারণে বিপাকে পড়েছে সাধারণ মানুষ।

শেয়ার করুন।