দিনাজপুরে লিচু গাছগুলো এখন মুকুলে ভরে গেছে

0

দিনাজপুরে লিচু গাছগুলো এখন মুকুলে ভরে গেছে । বেড়ে গেছে মৌমাছিদের আনাগোনা। তাইতো মধু সংগ্রহে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আসা মৌয়ালদের পদচারনায় মুখর এখন বিরল উপজেলার মাধববাটি ও সদর উপজেলার মাসিমপুর গ্রাম। একদিকে যেমন মৌয়ালরা মধু সংগ্রহ করছেন অন্যদিকে মৌমাছির দ্বারা পরাগায়ন হয়ে বাড়ছে লিচুর ফলন।

দিনাজপুরের বিরল উপজেলার মাধববাটী ও সদর উপজেলার মাসিমপুর লিচুর জন্য বিখ্যাত। লিচুর মুকুল আসার সাথে সাথে প্রতি বছর বিভিন্ন স্থান থেকে মৌমাছি নিয়ে মধু চাষীরা ছুটে আসেন দিনাজপুরে। চাষীরা জানান, ১৫০টি মৌমাছির বাক্সে ৫ দিন পর ১ টন করে মধু সংগ্রহ করেন তারা। লিচু বাগান মালিকরা জানালেন, মধু চাষীরা মৌমাছির মাধ্যমে মধু সংগ্রহ করায় লিচুর মুকুলের পরাগায়ন হয়। এতে করে লিচুর ভাল ফলন হয়।

মধু প্রক্রিয়াজাত করে বিদেশে রপ্তানির পাশাপাশি ক্ষুদ্র ঋণ সহায়তা দেয়ার দাবি মধুচাষীদের । সরকারী ও বেসরকারীভাবে দিনাজপুরে বছরে প্রায় ৫৬ হাজার কেজি মধু উৎপাদন হয়ে থাকে বলে জানালেন বিসিক কর্মকর্তা। মধুচাষী ও স্থানীয় বাগান মালিকরা আশা করছেন, সরকারী পৃষ্ঠপোষকতা পাওয়া গেলে মধু রপ্তানী হবে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন