চীনের প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস শনাক্তে সাতক্ষীরা ভোমরা স্থলবন্দরে সর্তকতা জারি

0

চীনের প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস শনাক্তে সাতক্ষীরা ভোমরা স্থলবন্দরে সর্তকতা জারি করা হয়েছে। ইমিগ্রেশনে বসানো হয়েছে মেডিকেল টিম।দেশী-বিদেশী যাত্রীদের সতর্কতার সাথে পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হচ্ছে।এছাড়া বেনাপোল চেকপোস্ট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও দিনাজপুরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

চীনের উহান শহর থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া নিউমোনিয়া সাদৃশ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরে সতর্কতা জারি করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, জ্বর জ্বর ভাব, চোঁখ লাল, ব্যথা- এসব উপসর্গ যাত্রীদের দেখা গেলে, নাম পরিচয় অবহিত করতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে উপসর্গে ও নমুনা সংগ্রহ করে গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইইডিসিআরকে পাঠাতে বলা হয়েছে।

ভাইরাস শনাক্তে স্থলবন্দরে সর্তকতা জারি করে ইমিগ্রেশনে মেডিকেল টিম বসানো হয়েছে, জানিয়েছেন সিভিল সার্জন। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে আগাম এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক। বেনাপোল স্থলবন্দরে সতর্ক অবস্থায় রয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। থার্মোমিটার দিয়ে চলছে পরীক্ষা নিরীক্ষা।তবে ভারতের পেট্রাপোল স্থলবন্দরে কোন স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে না বলে জানিয়েছে পাসপোর্ট যাত্রীরা।

এদিকে, থার্মাল স্কানারের মনিটর নষ্ট রয়েছে দীর্ঘদিন, এব্যাপারে কর্তৃপক্ষে জানানো হয়েছে বলে জানান মেডিকেল অফিসার। অন্যদিকে,সকাল থেকেই ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে করোনা ভাইরাসের ব্যাপারে সতর্কতামূলক বিএমএ ভবনে কর্ণার স্থাপন করা হয়েছে।

এদিকে, দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে থার্মাল স্ক্যানার মেশিন না থাকায় বিভিন্ন দেশ থেকে আগত যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ব্যাহত হচ্ছে। পাসপোর্ট যাত্রীদের মাধ্যমে ভাইরাসটি দেশে ঢুকে পড়ার আশঙ্কা করছে অনেকে। এদিকে হিলি চেকপোষ্টে স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে মেডিকেল টিম বসানো হয়েছে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন