চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ এক্সেস রোডটিও একেবারেই চলাচলের অনুপযোগী

0

চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ এক্সেস রোডটিও একেবারেই চলাচলের অনুপযোগী। অথচ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সঙ্গে চট্টগ্রাম বন্দরের সংযোগ সৃষ্টি করেছে এই রোড। প্রায় এক বছর ধরে সড়কটির বেহাল অবস্থা থাকলেও মাঝে মধ্যে বড়-বড় খানা-খন্দে ইট ফেলেই দায় সেরেছে সিটি কর্পোরেশন। দীর্ঘদিন ধরে দুর্ভোগের কারণে চরম ক্ষুব্ধ এই সড়কে চলাচলকারীরা। আর ওয়াসা ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের ওপর দায় চাপিয়ে পার পেতে চাইছে সিটি কর্পোরেশন।

দেশের অর্থনীতির মেরুদণ্ড হিসেবে পরিচিত ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক। আর এই মেরুদণ্ডের সঙ্গে চট্টগ্রাম বন্দরের সংযোগ সৃষ্টি করেছে আগ্রাবাদ এক্সেস রোড। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না করায় এই সড়কে সৃষ্টি হয়েছে খানা-খন্দ। আর বর্ষায় বৃষ্টি ও জোয়ারের পানি জমে এখন প্রায় চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে বন্দরনগরীর গুরুত্বপুর্ণ এই সড়কটি।

বন্দর ও কাস্টমস সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ছাড়াও সরকারী-বেসরকারী প্রায় সব প্রতিষ্ঠানই এই এলাকায় অবস্থিত। তাই এই সড়কটিতে চলাচল করা মানুষের সংখ্যাও বেশি। অথচ সড়কের নাজুক অবস্থার কারণে পোহাতে হচ্ছে ভোগান্তি।

ওয়াসা ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের উন্নয়ন কাজ চলায় সড়ক সংস্কার সম্ভব হচ্ছে না বলে জানালেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র।নগর পরিকল্পনাবিদরা বলছেন উন্নয়ন প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে সমন্বয় না থাকায় দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন সাধারণ মানুষ।

সিটি কর্পোরেশনের হিসেবে গত বর্ষা মৌসুমে চট্টগ্রামের সাড়ে তিন’শো কিলোমিটার সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলো। এর মধ্যে অনেকগুলো সংস্কার করা হলেও প্রধান প্রধান সড়কগুলোতে এখনো হাত দিতে পারেনি সিটি কর্পোরেশন।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন