খুলনা-মংলা রেল লাইন প্রকল্পের কাজ চলছে দ্রুত গতিতে

0

খুলনা-মংলা রেল লাইন প্রকল্পের কাজ চলছে দ্রুত গতিতে। ইতিমধ্যেই এ প্রকল্পের প্রধান অংশ রূপসা নদীর উপর রেলসেতুতে পাঁচটি স্প্যান স্থাপন হওয়ায় দৃশ্যমান হয়েছে সেতুর অবয়ব। এছাড়া রেল লাইন স্থাপন ও পাইলিংসহ প্রকল্পের কাজের ৫০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। প্রকল্পের নির্দিষ্ট কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী এগিয়ে চলছে রেল লাইন এবং বাংলাদেশে প্রথম সুপার স্ট্রাকচারের রেল সেতুর নির্মাণ কাজ। এ প্রকল্প বাস্তবায়নে বেশকিছু সমস্যা থাকলেও সেগুলোকে টপকিয়ে ২০২১ সালের মধ্যে খুলনা-মংলা রেল প্রকল্প সম্পন্নের আশা কর্মকর্তাদের।

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে সর্কভুক্ত প্রতিবেশী দেশগুলোর যোগাযোগ সহজীকরণ, মংলা বন্দরের গতিশীলতা বৃদ্ধি এবং দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ব্যবসা-বাণিজ্য ও আমদানি-রপ্তানি বাড়াতে ২০১০ সালে খুলনা-মোংলা রেললাইন নির্মাণ প্রকল্প অনুমোদন দেয় সরকার। এ প্রকল্পের আওতায় রেললাইন, সেতু নির্মাণ ও জমি অধিগ্রহণসহ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয় ৩ হাজার ৮০১ কোটি ৬১ লাখ টাকা। নির্দিষ্ট কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে দেশের প্রথম সুপার স্ট্রাকচারের রেল সেতু ও খুলনা-মংলা রেল লাইন নির্মাণ কাজ। ইতিমধ্যেই এ প্রকল্পের ৫০-৬০ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

কর্মকর্তারা বলছেন, পরিকল্পনা অনুযায়ী রেল সেতু ও রেললাইন নির্মাণ কাজ চলছে। তাই নির্ধারিত সময় ২০২১ সালের মধ্যে প্রকল্পের কাজ শেষ হবে বলে প্রত্যাশা প্রকল্প পরিচালকের। প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত খুলনা-মোংলা রেলপথ নির্মাণ প্রকল্প সম্পন্ন হলে মোংলা বন্দরের সঙ্গে কম খরচে ভারত, নেপাল ও ভূটানসহ প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে যোগাযোগ ও অর্থ-বাণিজ্যে নতুন দিগন্ত উম্মোচিত হবে বললেন জেলা প্রশাসক। বাংলাদেশ ও ভারত সরকারের যৌথ অর্থায়নে খুলনা-মোংলা রেল প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৩ হাজার ৮০১ কোটি ৬১ লাখ টাকা। এর মধ্যে রেললাইনের জন্য ১ হাজার ১৪৯ কোটি ৮৯ লাখ টাকা, সেতুর জন্য ১ হাজার ৭৬ কোটি ৪৫ লাখ টাকা এবং বাকি টাকা জমি অধিগ্রহণে ব্যয় করা হয়েছে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন