খুলনায় পাঁচজন এবং গাজীপুরে আটজনের প্রার্থীতা বৈধ

0

খুলনা সিটি নির্বাচনে পাঁচজন এবং গাজীপুরে আটজনের মেয়র প্রার্থীতা বৈধ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। খুলনায় পাঁচ জন এবং গাজীপুরে ১০ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলো। মনোনয়নপত্র যাচাই- বাছাইয়ের প্রথমদিনে, খুলনা সিটিতে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইউনুস আলী এবং গাজীপুর সিটিতে রকিব উদ্দিন মন্ডল মনোনয়নপত্র বৈধতার ঘোষণা দেন।

ভোটারের হিসেবে, দেশের সবচে’ বড় মহানগর- গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন। আগামী ১৫ মে, নির্বাচনে ভোটগ্রহণকে সামনে রেখে– এরিমধ্যে পুরোদমে শুরু হয়েছে পুরোপুরি নির্বাচনী আমেজ।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, রোববার ছিলো নির্বাচন কমিশনের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের প্রথম দিন। সকাল থেকে নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রকিব উদ্দিন মন্ডলের নেতৃত্বে শুরু হয়, মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই। এতে মেয়র পদে ১০ জন আগ্রহী প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিলেও, সবার প্রার্থীতা বৈধ ঘোষণা হয়নি।

বৈধ প্রার্থীরা হলো- আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী- জাহাঙ্গীর আলম, বিএনপি’র- হাসান উদ্দিন সরকার, জাসদের মোহাম্মদ রাশেদুল হাসান, ইসলামী আন্দোলনের নাসির উদ্দিন, ইসলামি ফ্রন্টের- জালাল উদ্দিন, স্বতন্ত্র প্রার্থী বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে জামায়াতের প্রার্থী এস এম সানাউল্লাহ ও ফরিদ আহমেদ।

এদিকে, খুলনা সিটি নির্বাচনে ৫ জন আগ্রহী প্রার্থী মেয়র হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতার আবেদন করে। যাতে সব মনোননয়নই বৈধ ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। প্রার্থীরা হলো- আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক, বিএনপির নজরুল ইসলাম মঞ্জু, জাতীয় পার্টির- এসএম শফিকুর রহমান, ইসলামি আন্দোলনের মুজাম্মিল হক ও সিপিবি মনোনিত প্রার্থী মিজানুর রহমান বাবু।

এদিকে, দুই সিটিতে মেয়র প্রার্থীদের পাশাপাশি সাধারণ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদের প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করা হয়। সোমবারই শেষ হবে যাচাই-বাছাই। মনোনয়ন যাচাই বাছাইয়ের শেষ দিন ২৩ এপ্রিল প্রতীক বরাদ্দ ২৪ এপ্রিল আর ভোটগ্রহণ হবে ১৫ ই মে।

অন্যদিকে, রোববার দুপুরে খুলনা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের স্বার্থে কমিশন ও পুলিশ প্রশাসনকে কঠোর হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে সুশাসনের জন্য নাগরিক- সুজন।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন