খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে অস্থায়ী আদালতে চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার শুনানি

0

খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতেই শেষ হয়েছে নাজিমুদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত অস্থায়ী আদালতে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার শুনানি। শারীরিক অসুস্থতার কারণে এদিন আদালতে জামিনের মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন করেছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন। তবে শুনানিতে উপস্থিত থাকতে কারা কর্তৃপক্ষের কাছে খালেদা জিয়ার অনীহা প্রকাশের পরও, তাঁকে জামিন দেয়ার আইনি বৈধতার বিষয়ে আসামীপক্ষের কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছে আদালত।

রাজধানীর নাজিমুদ্দিন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত অস্থায়ী আদালতে জিয়া চ্যারিটেবল মামলার শুনানিতে উপস্থিত না থাকার বিষয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সনের সিদ্ধান্ত জানা যায় গত ৫ সেপ্টেম্বর। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার শুরু হয় আলোচিত এই মামলার যুক্তিতর্কের শুনানি। কঠোর নিরাপত্তা এবং তল্লাশির মধ্য দিয়ে গণমাধ্যম কর্মীরা ঢোকেন আদালতে। দুপুর ১২টা ২২ মিনিটে শুরু হয় শুনানি।

ঘন্টাখানেকের শুনানি শেষে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মামলার কার্যক্রম মূলতবি রাখে আদালত। খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতির বিষয়টি ব্যাখ্যা করেন তাঁর আইনজীবী। এসময় আদালতে ১০টি আইনি যুক্তি তুলে ধরে এই মামলার অপর দুই আসামী জিয়াউল এবং মনিরুলের আইনজীবীরা বলেন, কারাগারে ভেতরে স্থাপিত এই আদালত হাস্যকর ও অসাংবিধানিক। আদালতের প্রতি অনাস্থা ও অনুপস্থিতির কারণে খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়ে কীভাবে সিদ্ধান্ত দেয়া হবে, আসামীপক্ষের কাছে তার আইনি ব্যাখ্যা চেয়েছে আদালত। আসামীপক্ষ একই মুখে দু’ধরণের কথা বলে আদালতকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন