কোটা সংস্কারের নামে যারা নৈরাজ্য ও সন্ত্রাস সৃষ্টি করেছে

0

কোটা সংস্কারের নামে যারা নৈরাজ্য ও সন্ত্রাস সৃষ্টি করেছে, তাদের চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে শ্রমিক কর্মচারি এবং মুক্তিযোদ্ধার সন্তানরা। দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ মিছিলের আগে সমাবেশে, এই দাবি জানানো হয়। এসময় সংগঠনের নেতারা দাবি জানান– যুদ্ধাপরাধী, রাজাকার ও স্বাধীনতা বিরোধীদের সন্তানদের সরকারি চাকরিতে নিয়োগ দেয়া বন্ধ করতে হবে।

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের শাস্তি, যুদ্ধাপরাধীদের নাগরিকত্ব বাতিল ও তাদের স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা-সহ ছ’দফা দাবিতে এই সমাবেশের আয়োজন করা হয়। এসময় বক্তারা বলেন, মুক্তিযুদ্ধের এদেশে স্বাধীনতা বিরোধীদের কোন স্থান নেই। যারা মুক্তিযুদ্ধ ও সরকারের বিরোধী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত, তাদের সরকারি চাকরি থেকে রবখাস্ত করতে হবে।

এসময় শ্রমিক কর্মচারি পেশাজীবী মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় পরিষদের আহ্বায়ক নৌমন্ত্রী শাজাহান খান বলেন, আদর্শহীন মেধা ও রাজনীতি দেশের কল্যাণ বয়ে আনতে পারে না। তাই দেশের স্বার্থে রাজাকার ও যুদ্ধাপরাধীদের সন্তানরা এদেশে সরকারি চাকরি পেতে পারে না।

১৮ এপ্রিল ছ’দফা দাবির পক্ষে জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি পেশ করা হবে বলেও ঘোষণা দেন বক্তারা। পরে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন