ঈদের কেনাকাটায় পিছিয়ে নেই রাজশাহীর সিল্কপল্লী

0

ঈদের কেনাকাটায় পিছিয়ে নেই রাজশাহীর সিল্কপল্লী। শেষ সময়ে সরগরম নারীদের বিশেষ পছন্দের সিল্ক শাড়ির শোরুমগুলো। তবে উদ্যোক্তারা বলছেন, ঐতিহ্যবাহী এই শিল্পকে টিকিয়ে রাখতে সরকারি প্রণোদনার বিকল্প নেই।

আভিজাত্যের প্রতীক হিসেবে পরিচিত সিল্কের পোশাক। তাই, ঈদকে সামনে রেখে সামর্থ্যবানরা ছুটছেন শোরুমগুলোতে। সিল্কের শাড়ি না হলে যেনো ঈদই হয় না রাজশাহী অঞ্চলের নারীদের। তবে, পুরুষদের জন্যও কমতি নেই বাহারি পাঞ্জাবির।

এবার ঈদে নারীদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে– মসলিন সিল্ক, বলাকা স্টিচ, সফট সিল্ক, এনডি সিল্ক, ধুপিয়ান ও জামদানি সিল্কের শাড়ি। দাম আড়াই হাজার থেকে ১৬ হাজার টাকা। সিল্ক পোশাকের তালিকায় এবার যোগ হয়েছে, মেয়েদের থ্রি-পিস। দাম আড়াই হাজার থেকে সাড়ে ন’হাজার টাকার মধ্যে।

রাজশাহীর ঐতিহ্যবাহী সিল্ক এখন বিদেশি সূতার ওপর নির্ভরশীল। তাই, স্থানীয়ভাবে সুতা উৎপাদনে সরকারি প্রণোদনা জরুরি বলে জানান,উদ্যোক্তারা। প্রায় সারাবছর নগরীর সপুরা সিল্কপল্লী অলস পড়ে থাকলেও, ঈদে বাড়ে ব্যস্ততা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন