ঈদুল আজহার জামাত শেষে, ডেঙ্গুর ভয়াবহতা থেকে মুক্তি পেতে মোনাজাত

0

ঐতিহাসিক শোলাকিয়ায়সহ সারাদেশে ঈদুল আজহার জামাত শেষে, দেশের শান্তি-সমৃদ্ধি কামনার পাশাপাশি ডেঙ্গুর ভয়াবহতা থেকে মুক্তি পেতে মোনাজাত করা হয়েছে।

কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়ায় নজিরবিহীন নিরাপত্তার মধ্যে শাস্তিপূর্ণভাবে ঈদুল আজহার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঈদ জামাতে ইমামতি করেন মার্কাস জামে মসজিদের খতিব মুফতি মো. হিফজুর রহমান। ১৯২তম ঈদ জামাত শেষে ডেঙ্গু পরিস্থিতি থেকে উত্তোরণ ও বিশ্বের মুসলিম উম্মার শান্তি কামনায় মোনাজাত করা হয়।

আয়তনে দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় ঈদগাহ দিনাজপুরের গোর-এ শহীদ বড় ময়দানে সুষ্ঠুভাবে ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিকুল আবহাওয়া উপেক্ষা করে এবারে ষষ্ঠবারের মতো আয়োজিত এই ঈদের জামাতে প্রায় ৪ লাখ মুসল্লি একসঙ্গে নামাজ আদায় করেছে বলে জানিয়েছে আয়োজকরা।

সিলেটে প্রধান ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয় শাহী ঈদগায়। জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদ ও প্রশাসনের শীর্ষ ব্যক্তিসহ অন্তত ২০ হাজার মুসল্লি শাহী ঈদগায় নামাজ অদায় করেন।

ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় বড় মাঠে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে।এখানে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নামাজ আদায় শেষে কালিবাড়ির নিজ বাস ভবনে বিএনপির পক্ষ থেকে দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানান।

লাখো মানুষের ঢল নামে চট্টগ্রামের প্রধান ঈদ জামাত জমিয়াতুল ফালাহ মসজিদ প্রাঙ্গনে। এখানে অনুষ্ঠিত হয়েছে দুটি জামাত। এছাড়া এমএ আজিজ স্টেডিয়াম, লালদিঘি এবং বাকুলিয়া সিটি কর্পোরেশনের মাঠসহ মহানগরীর ১৬৪টি জেলার প্রায় ৫ শতাধিক জায়গায় অনুষ্ঠিত হয় ঈদ জামাত।

খুলনায় আবহাওয়া অনুকূল না থাকায় টাউন জামে মসজিদে ঈদের প্রথম ও প্রধান জামাত সকাল আটটায় অনুষ্ঠিত হয়। পরে আরো একটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

বরিশালে ঈদুল আযহার প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয় হেমায়েতউদ্দিন কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে। বরিশাল বিভাগে সর্ববৃহৎ ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয় সদর উপজেলার চরমোনাই দরবার শরীফ মাঠে।

কুষ্টিয়ায় ধর্মীয় ভাবগাম্ভির্যের মধ্যদিয়ে ১২৫টি ঈদগাহে ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করেছে মুসল্লিরা। কুষ্টিয়ার কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে ঈদ নামাজে অংশ নেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ এবং বিচারপতি মো: আবু জাফর সিদ্দীকি।

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে গোপালগঞ্জে পবিত্র ঈদ-উল-আযহার প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়ামে এ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার জয়াগ ঈদগাহ মাঠে জেলার সবচেয়ে বড় ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়েছে। দুর-দুরান্ত থেকে মুসল্লিরা জামায়াতে শরিক হোন। এছাড়া এখানে নামাজ আদায় করেন, সৌদি প্রবাসী আজওয়া আল-আন্ডালাজ গ্রুপ ও হোটেল বুরোজ আল -সোলতানের পরিচালক নুর মোহাম্মদ ভুঁইয়াসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তির্বগ।

এছাড়া মৌলভিবাজার, নেত্রকোনা, রাজবাড়ি, নড়াইল, মাগুড়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, কুমিল্লা, ময়মনসিংহ, যশোর, নরসিংদী, ফরিদপুর, চুয়াডাঙ্গা, হবিগঞ্জ, চাঁদপুর,পাবনা এবং বগুড়ায় ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন