আদালতে নাইকো দূর্নীতি মামলায় আসামী করার কারণ জানতে চাইলেন খালেদা জিয়া

0

সরকারের ধারাবাহিক কার্যক্রম রক্ষার কারণে আমাকে আসামী করা হলে, বর্তমান প্রধানমন্ত্রীকে নয় কেনো। আদালতে নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানিতে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া এমন প্রশ্ন করেন বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী। জবাবে দুদক আইনজীবী বলেন, নাইকোর সম্পাদিত সমঝোতা চুক্তি, চারদলীয় জোট সরকার পরিবর্তন করায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। এদিকে, চিকিৎসকদের পরামর্শ উপেক্ষা করে খালেদা জিয়াকে কারাগারে নেয়াকে প্রতিহিংসার রাজনীতি ও বেআইনি বলে মন্তব্য করেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

রাজধানীর বকশিবাজারের অস্থায়ী আদালতেই চলছে নাইকো দুর্নীতি মামলার বিচারকাজ। এই মামলায় খালেদা জিয়াসহ ১১ জনকে আসামী করেছে দুদক। অভিযোগ পত্রে বলা হয়, আসামীরা আর্থিক লাভের উদ্দেশ্যে নাইকোর সঙ্গে সম্পাদিত চুক্তির কারণে রাষ্ট্রের ক্ষতি হয়েছে ১৩ হাজার ৭শ ৭৭ কোটি। এরমাঝে শারীরিক অসুস্থতার কারণে গেল ৬ অক্টোবর থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের প্রিজন সেলে নেয়া হয় খালেদা জিয়াকে। ৫ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ডের তত্ত্বাবধানে সেখানেই চলছিলো সাবেক প্রধানমন্ত্রীর চিকিৎসা।

সবশেষ গেল বুধবার আইন মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়, নিরাপত্তার কারণে নাজিমুদ্দীন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারেই চলবে নাইকো দুর্নীতি মামলার বিচারকাজ। বৃহস্পতিবার নাইকো মামলার পূর্ব নির্ধারিত শুনানিতে কঠোর নিরাপত্তায়, হাসপাতাল থেকে পুরোনো কারাগারের অস্থায়ী আদালতে নেয়া হয় খালেদা জিয়াকে। শুনানির শেষে ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত মামলার কার্যক্রম মুলতবি করে আদালত।

এদিকে, হাসপাতাল থেকে বিএনপি চেয়ারপার্সনকে কারাগারে নেয়ায় ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া দেন বিএনপি মহাসচিব। তবে সেই অভিযোগ অস্বীকার করেন দুদক আইনজীবী। এসময় শুনানিতে খালেদা জিয়ার দেয়া বক্তব্য এবং জবাবও দেন উভয়পক্ষের আইনজীবীরা। এদিকে খালেদা জিয়াকে হাসপাতাল থেকে কারাগারে নেয়ার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে বিএনপি চেয়ারপার্সনের আইনজীবীদের করা আবেদন গ্রহণ করেনি হাইকোর্ট।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন