আগামী প্রজন্মের জন্য স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ে তোলার প্রতিশ্রুতি প্রধানমন্ত্রীর

0

জনগণের আস্থা ভালবাসা ধরে রেখে, আগামী প্রজন্মের জন্য সুন্দর জীবন আর ভবিষ্যৎ নিশ্চিতে ‘স্বপ্নের বাংলাদেশ’ গড়ে তোলার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় দানবীর রণদা প্রসাদ সাহার মানবসেবা ও দেশপ্রেমের নিদর্শন অনুসরণ করে বিত্তশালীদের সমাজ সেবায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি। সমাজসেবামুলক যে কোন কাজে সরকার সর্বাত্মক সহায়তা করবে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

টানা তিনবার সরকারের দায়িত্ব পালন করলেও এই প্রথম টাংগাইলে এলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দীর্ঘ ১৪ বছর পর এ জেলায় এসে উপহারও দিলেন দু’হাত ভরে। সাথে ছিলেন ছোট বোন শেখ রেহানা।

মির্জাপুরে কুমুদিনী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের ৮৬তম বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে প্রথমেই ১২ টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ১৯টির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।

পরে যোগ দেন কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের প্রতিষ্ঠাতা দানবীর রণদা প্রসাদ সাহা স্মারক স্বর্ণপদক অনুষ্ঠানে।

এবার এ সম্মানে ভূষিত হলেন দেশের চার বরেণ্য ব্যক্তি- হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী , কবি কাজী নজরুল ইসলাম, জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম এবং চিত্রশিল্পী বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাবউদ্দিন। স্বর্ণপদক তুলে দেন সরকার প্রধান।

সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কষ্টার্জিত সম্পদ মানবসেবায় নিঃস্বার্থ ভাবে খরচ করে যে নিদর্শন রণদা প্রসাদ সাহা রেখেছেন, তা সামর্থবানরা অনুসরণ করলে পাল্টে যাবে সমাজ। 

জনগণের ভালবাসা আর আস্থা নিয়েই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে কাজ করে যাওয়ার অঙ্গীকারও করেন প্রধানমন্ত্রী।

ক্ষমতার ধারাবাহিকতা থাকায় বাংলাদেশ এখন বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, দেশকে আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে চায় বর্তমান সরকার। 

এর আগে ভারতেশ্বরী হোমসের শিক্ষার্থীদের বর্ণিল ডিসপ্লে উপভোগ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন