৭২ ঘন্টার কর্মবিরতি ট্রাক-কাভার্ডভ্যান মালিক ও ট্রাক চালক সমিতির

0

সড়ক-মহাসড়কে চাঁদাবাজি, ট্রাফিক পুলিশের হয়রানি, স্কেলের নামে পণ্য পরিবহনে বাঁধা দেয়া বন্ধ করাসহ ১৫ দফা দাবিতে সারাদেশে ৭২ ঘন্টার কর্মবিরতি করছে কাভার্ডভ্যান-ট্রাক-প্রাইমমুভার মালিক এ্যাসোসিয়েশন ও ট্রাক চালক সমিতি। কর্মবিরতির ফলে সব ধরনের পণ্য পরিবহন থেকে বিরত রয়েছে মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ।

সড়ক-মহাসড়কে চাঁদাবাজি, ট্রাফিক পুলিশের হয়রানি, স্কেলের নামে পণ্য পরিবহনে বাঁধা দেয়া বন্ধ করাসহ ১৫ দফা দাবিতে সারাদেশের মতো চট্টগ্রামেও ৭২ ঘন্টার কর্মবিরতি করছে কাভার্ডভ্যান-ট্রাক-প্রাইমমুভার মালিক এসোসিয়েশন ও ট্রাক চালক সমিতি। সকাল ছ’টা থেকে এই কর্মসুচি চলছে। নেতারা অভিযোগ করেন, সড়কে শ্রমিকের জীবনের পাশাপাশি পরিবহন ও পণ্যেরও নিরাপত্তা নেই। নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা হাইওয়ে ও ট্রাফিক পুলিশের কাছেই বেশি হয়রানির শিকার হচ্ছে তারা।

পাবনাতেও কর্মবিরতি চলছে। কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকায় পাবনা-ঢাকা মহাসড়কে অবস্থান নেয় সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। এ সময় পণ্যবাহী ট্রাক–কাভার্ড ভ্যান আটকে দাবি আদায়ে বিক্ষোভ করে নেতা-কর্মীরা।

বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের রহমতপুর বিমান বন্দর এলাকায় বিভিন্ন জেলা থেকে আসা ট্রাক, কাভার্ডভ্যান, মিনি ট্রাক ও পিকআপ আটকে রাখে মালিক-শ্রমিক নেতারা।

মোটরযান মালিকদের ওপর আরোপিত বর্ধিত আয়কর বাতিল ও চালকদের সহজ শর্তে ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদানসহ ১৫ দফা দাবিতে বেনাপোল স্থলবন্দরেও চলছে কর্মবিরতি। এতে করে বেনাপোল স্থল বন্দর থেকে সব ধরনের পণ্য পরিবহন থেকে বিরত রয়েছে মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ।

চুয়াডাঙ্গায় কর্মবিরতি চলছে। জেলার সবকটি রুটে বন্ধ রয়েছে ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানসহ পণ্যবাহী পরিবহন। এছাড়া, একই দাবিতে নওগাঁ ও দিনাজপুরেও চলছে ট্রাক মালিক-শ্রমিকদের ডাকা কর্মবিরতি।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন