৫ বছর পর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন

0

৫ বছর পর ১০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে খুলনা মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন। এবারই প্রথম একই দিনে একই স্থানে অনুষ্ঠিত হবে দলটির মহানগর ও জেলা ইউনিটের সম্মেলন। সম্মেলন ঘিরে নেতাকর্মীদের মাঝে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে।

দক্ষিনাঞ্চলে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে খুলনা মহানগর ও জেলা অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ণ ইউনিট হিসেবে বিবেচিত। সম্মেলন সামনে রেখে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে সম্ভাব্য প্রার্থীরা সরব হয়ে উঠেছেন। সভাপতি পদে প্রবীণদের আধিক্য থাকলেও ইউনিট দুটির সাধারণ সম্পাদক পদে একঝাঁক সাবেক ছাত্রনেতা নিজেদের প্রার্থীতা ঘোষণা দিয়েছে। তৃণমুলের নেতারা বলছেন,বিতর্কিতদের কমিটিতে স্থান না দেয়ার পাশাপাশি প্রবীন-নবীনের সমন্বয়ে নতুন কমিটি দেখতে চান তারা।

সম্মেলনে প্রস্তুতি হিসেবে কাউন্সিলর নির্বাচনে ৩৬টি ওয়ার্ড নতুন কমিটি করেছে, তবে মহানগরের ৫টি থানায় থাকছে আগের কমিটি। অপরদিকে ৯টি উপজেলার মধ্যে পাইকগাছা উপজেলা ছাড়া আর কোথাও নতুন কমিটি করতে পারেনি জেলা। এতে পুরাতন কমিটির সদস্যরাই কাউন্সিলর হিসেবে থাকছে।

দলের অনুপ্রবেশকারী ও বিতর্কিত নেতাদের তালিকা প্রনয়ন করা হয়েছে। তাই সম্মেলনে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচনে চমক থাকার ইঙ্গিত দিয়েছেন সম্মেলনের সমন্বয়ক শেখ হেলাল উদ্দিন। খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সবশেষ সম্মেলনে- শেখ হারুন-অর-রশিদ সভাপতি ও এস.এম. মোস্তফা রশিদী সুজা -সাধারণ সম্পাদক আর মহানগরে তালুকদার আব্দুল খালেক সভাপতি ও মিজানুর রহমান মিজান সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন