সৎ মায়ের নির্যাতনে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েছে ১৫ বছরের এক কিশোরী

0

কুমিল্লার চান্দিনায় স্কুল শিক্ষিকা সৎ মায়ের নির্যাতনে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েছে তিথি নামে ১৫ বছরের এক কিশোরী। মাতৃহীন তিথি বাবার সাথে সৎ মায়ের সঙ্গে বসবাস করত। অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য বাবা একটি দুর্ঘটনায় কারাগারে থাকায় চান্দিনার ভাড়া বাসার চার দেওয়ালের মাঝেই তিথিকে সহ্য করতে হয় সৎ মায়ের অকথ্য নির্যাতন। তিথির শরীরে নির্যাতনের ক্ষত চিহ্নের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে গা ঢাকা দেয় সৎ মা মাহমুদা সুলতানা লাভলী।

স্ত্রী মারা যাওয়ার পর অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য জামাল হোসেন ২০১৭ সালে স্কুল শিক্ষিকা লাভলীকে বিয়ে করে। কিন্তু সৎ মা লাভলী কিছুতেই মেনে নিতে পারছিল না প্রথম স্ত্রীর সন্তান তিথি ও তার ভাইকে। বাবার অনুপস্থিতিতে তিথির উপর চলত সৎ মায়ের অমানবিক নির্যাতন। খালার বাসায় বেড়াতে যাওয়া মানসিক ভারসাম্যহীন তিথিকে গোসল করাতে গিয়ে খালাতো বোনের চোখে পরে তার পুরো শরীরের নির্যাতনের চিহ্ন। এ নির্মম ঘটনার সুষ্ঠ বিচার দাবি করেছেন সাধারন মানুষ ও তার স্বজনরা।

চান্দিনা থানার ওসি শামসউদ্দিন মোহাম্মদ ইলিয়াছ জানান- আহত তিথিকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এ ঘটনায় শিশু নির্যাতন দমন আইনে চান্দিনা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামি গ্রেফতারে পুলিশ কাজ করছে বলে জানিয়েছেন তিনি। নির্যাতন যন্ত্রনায় হাসপাতালের বিছানায় কাতরাচ্ছেন তিথি। আসামীকে গ্রেফতারের মাধ্যমে এ ঘটনার দ্রুত বিচার দাবি করেছেন স্থানীয়রা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন