স্বাধীনতার ৪৭ বছর পর ভারত সীমান্ত পিলারে বাংলাদেশ নাম লেখার উদ্যোগ বিজিবির

0

স্বাধীনতার ৪৮ বছরে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের হাজার হাজার সীমানা পিলারের গায়ে লেখা পাক বা পকিস্তান শব্দ মুছে বাংলাদেশ লেখার উদ্যোগ নিয়েছে বর্ডার র্গাড বাংলাদেশ। ইতোমধ্যে কাজ শেষ পর্যায়ে চলে এসেছে। স্বাধীন দেশের সীমানা পিলারে পাকিস্তানের নাম থাকায় দীর্ঘদিন থেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে আসছিলো সাধারণ মানুষ। বর্তমানে সীমানা পিলারে বাংলাদেশের নাম প্রতিস্থাপন করায় খুশি সবাই।

যশোরসহ দেশের অনেক অঞ্চলে রয়েছে ভারত সীমান্ত। শুধু যশোর জেলায় বিজিবির আওতায় সীমান্ত রয়েছে ৭০ কিলোমিটার। এই সীমান্ত চিহ্নিত করতে রয়েছে ২৯ টি মেইন পিলার, ২২৭ টি সাব পিলার, ৩০ টি রেফারেন্স পিলার ও ১০৯৬টি টি-পিলার ।

আর্ন্তজাতিক নিয়মানুযায়ী সীমান্ত নির্ধারণে যে পিলার বসানো হয় তাতে লেখা থাকে দু’দেশেরই নাম। ১৯৪৭ সালে ভারত-পাকিস্তান ভাগ হওয়ার পর তৎকালীন বাংলাদেশ পাকিস্তানের অংশ থাকায় সীমান্ত পিলারের গায়ে পকিস্তান ও ভারতের নাম খোদাই করা ছিল। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর সব জায়গায় পাকিস্তানের পরিবর্তে বাংলাদেশের নাম লেখা হলেও সীমানা পিলারে ক্ষেত্রে ছিল ব্যতিক্রম। তবে দীর্ঘদিন পর হলেও বিজিবির উদ্যোগে সীমানা পিলারে এখন লেখা হচ্ছে বাংলাদেশের নাম।

বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের কার্যক্রম ও নিয়মতান্ত্রিকতায় বিলম্ব হলেও সমস্যার সমাধান হয়েছে। এতে খুশী সাধারণ মানুষও।

এদিকে, সীমানা পিলারে পাকিস্তানের পরিবর্তে বাংলাদেশের নাম প্রতিস্থাপন করায় নিজেদের গর্বিত মনে করছে বিজিবি।

এই উদ্যোগ শুধু এলাকাবাসী বা দেশের নাগরিকদের সন্তুষ্টিই নয়, পাশাপাশি উজ্জীবিত করবে সীমান্তে থাকা বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের সদস্যদেরও।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন