সাফল্যের আট বছর পেরিয়ে নবম বর্ষে পা দিলো এসএ টিভি

0

সাফল্যের আট বছর পেরিয়ে নবম বর্ষে পা দিলো দেশে তৃতীয় প্রজন্মের প্রথম হাইডেফিনেশন স্যাটেলাইট চ্যানেল- এসএ টিভি। জন্মদিনের প্রথম প্রহরে দর্শক, বিজ্ঞাপনদাতা এবং সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের উষ্ণ ভালবাসায় সিক্ত হয়েছে এসএ টিভি। এসময় মানসম্মত অনুষ্ঠান এবং বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনার প্রত্যয় ব্যক্ত করে সবার দোয়া চান এসএ টিভির অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক নূর এ আলম রুবেল এবং পরিচালক শামসুল আলম পান্থ। এসময় আমন্ত্রিত অতিথিরা বলেন, অল্প সময়ে এসএ টিভি যে গ্রহণযোগ্যতা অর্জণ করেছে তা হতে পারে অন্য টিভির জন্য এক অনুকরণীয় দৃষ্ট্রান্ত।

১৯ জানুয়ারি ২০১৩। দেশের ইতিহাসে তৃতীয় প্রজন্মের প্রথম হাইডেফিনেশন স্যাটেলাইট চ্যানেল হিসেবে যাত্রা শুরু করে এসএ টিভি। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ এবং নান্দনিক অনুষ্ঠান উপহার দেয়ার মাধ্যমে জনপ্রিয় হয়ে উঠে তৃতীয় প্রজন্মের এই টেলিভিশন চ্যানেলটি।

ক্যালেণ্ডারের পাতা উল্টে দিনপঞ্জিকার পাতায় আবারো আসে ১৯ জানুয়ারি। করোনাকালে সীমিত পরিসরে জন্মদিনের উৎসবে মাতে এসএ টিভি পরিবার। শীতের তীব্রতাকে উপেক্ষা করে, রাজনীতিবিদ,আইনজীবীসহ সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা অভিনন্দন জানাতে ছুটে আসেন গুলশানের এসএ টিভি অফিসে।

১২টা ১ মিনিটে কেক কাটার মধ্য দিয়ে শুরু হয় ৮ম বর্ষপূতির আনুষ্ঠানিকতা। এসএ টিভিকে ঘিরে নিজেদের প্রত্যাশার কথা জানান অতিথিরা। বিশিষ্টজনরা বলেন, এসএ টিভি হবে দেশ ও জনগনের মুখপাত্র। অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে এসএ টিভির সাহসী ভূমিকা দেখার প্রত্যাশাও জানান অনেকে। এই পথচলায় সাথে থাকার জন্য দর্শক, বিজ্ঞাপনদাতা ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান এসএ টিভি কর্তৃপক্ষ। এক সময় ভালবাসার উষ্ণতার কাছে উপেক্ষিত হয় শীতের তীব্রতা। সবার দোয়া ও শুভ কামনাকে পুঁজি করে এসএ টিভি এগিয়ে যাবে– জন্মদিনে এটাই ছিল সবার প্রত্যাশা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন