সরকারি বরাদ্দে ঘর নির্মাণে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে

0

সরকারি বরাদ্দে ঘর নির্মাণে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। টাকা ছাড়া বিল আটকে দেন তিনি। পাঁচটি ওয়ার্ডের প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতিদের কাছ থেকে ১৮ হাজার করে টাকা কেটে নিয়ে বিলের চেক দিয়েছেন বলে জানায় ভুক্তভোগীরা। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে প্রশাসন। এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন জয়পুর ক্ষেতলাল উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা রুহুল আমীন পাপন।

২০১৯-২০ অর্থ বছরে গ্রামীন অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষন কর্মসূচির আওতায় গৃহহীনদের জন্য দুর্যোগ সহনীয় ঘর নির্মান প্রকল্পের উদ্যোগ নেয় সরকার। এর আওতায় ক্ষেতলাল উপজেলায় ৩২টি ঘরের জন্য ৯৫ লাখ ৯৫ হাজার ৫২০ টাকা বরাদ্দ আসে প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে। অভিযোগ উঠেছে, বিল নিতে গেলে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কথা বলে ২৫ থেকে ২৮ হাজার টাকা দাবি করে পিআইও। ১৮ হাজার টাকা দিলে ফাইনাল বিলের চেক দেন তিনি। অফিসের ফাইল খরচ বাবদও তিন/চার হাজার টাকা ঘুষ দিতে হয় তাকে।

সব অভিযোগ অস্বীকার করেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা। এসব ব্যাপারে অবগত নন বলে জানান, জেলা ত্রান ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান, লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জেলা প্রশাসক বলেন, ইউএনও ব্যবস্থা না নিলে তিনি উদ্যোগ নেবেন। কর্তৃপক্ষ বিষয়টি তদন্ত করে দ্রত ব্যবস্থা নেবে বলে আশা করে, ভুক্তভোগীরা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন