সব ধরনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে করের আওতায় আনা হবে: তথ্যমন্ত্রী

0

ফেসবুক ও ইউটিউবের ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মসহ সব ধরনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে করের আওতায় আনা হবে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। এছাড়া মোবাইল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে আপত্তিকর ভিডিও কন্টেন্ট আপলোডকারীদের ব্যাপারেও সিদ্ধান্ত নেয়া হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। সচিবালয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভার শুরুতে সাংবাদিকদের একথা জানান তথ্যমন্ত্রী। এতে যোগ দেন টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তফা জব্বারও।

দেশে ফেসবুক ব্যাবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ৪ কোটি। এই ফেসবুকসহ ইউটিউবে এখন তথ্য ও বিনোদনের নানা প্লাটফর্ম হিসেবে ব্যাবহার করে অনেকেই ব্যবসায়িকভাবে লাভবান হচ্ছে। টেলিভিশন ও প্রিন্ট মিডিয়ার অনেক বিজ্ঞাপন এখন চলে যাচ্ছে এসব সোশ্যাল মিডিয়ায়। এতে প্রকৃত গণমাধ্যম যেমন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে তেমনি সরকারও এ খাত থেকে রাজস্ব হারাচ্ছে। সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত এক ভার্চুয়াল সভায় তথ্যমন্ত্রী বলেন, অবশ্যই নিয়ম-নীতির মধ্যে আনতে হবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে।

ইতোমধ্যে বেশ কটি ওয়েব কন্টেন্ট এর ব্যাপারে অভিযোগ এসেছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন এ মাধ্যমটি ব্যবহার করে সমাজকে অস্থিতিশীল করারও সুযোগ থাকায় বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সভায় ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী যোগ দিয়ে বলেন ভারতে ফেসবুক অফিস করলেও, বাংলাদেশে কথা রাখেনি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ । এতে অনেক কিছুই মনিটর করা যাচ্ছে না ।

দুই মন্ত্রীই বলেন, এ সব বিষয় একটি নিয়মনীতির মধ্যে আনতে কাজ শুরু হয়েছে, যেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যাক্তি বা গোষ্ঠীর হাতে চলে না যায়।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন