সচেতন না হলে করোনা সংক্রমণের হার আশঙ্কাজনক হতে পারে

0

দুই মাসের বেশি সাধারণ ছুটি শেষে অফিস আদালত খুললেও নগর জীবন পুরনো চেহারায় ফিরে আসেনি। রাস্তাঘাটে মানুষ ও হালকা যানবাহন বেড়েছে। তবে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় সড়কে যানজট তেমন হয়নি। অফিস আদালতে যাওয়া মানুষ স্বাস্থ্যবিধি ও মাস্ক পরা থাকলেও, সড়কে চলাচলরত অনেককেই দেখা গেছে মাস্ক ছাড়া। সামাজিক দূরত্বও রক্ষা করা হচ্ছে না। স্বাস্থ্যবিধি মানাতে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতাও তেমন দেখা যায়নি।

করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে দীর্ঘ দুই মাসের বেশি সময় সাধারণ ছুটিতে ছিল পুরো দেশ। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সরকারি সিদ্ধান্তে অফিস খুলেছে। একারণে নগরীর রাস্তায় গণপরিবহন ছাড়া সব ধরণের যানবাহন ও মানুষের পদচারণা বেড়েছে। তবে এখনো যানজট ও জনজটের পুরোনো চেহারায় ফেরেনি রাজধানী। অফিস খোলার প্রথম দিনে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই অফিসে যান চাকুরিজীবীরা। সংক্রমন রোধে ও সু-রক্ষায় নিজেদেরেই সাবধান থাকতে হবে বলে জানান তারা।

জীবিকার তাগিদে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পেরে স্বস্তির কথা জানান নগরবাসী। তবে রাস্তায় অনেককেই স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করতে ও সামাজিক দূরত্ব মেনে না চলতে দেখা যায়। রাস্তায় মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মানতে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তেমন তৎপরতা ছিল না। তবে পুলিশ অফিসারদের দাবি, ব্যাপক আকারে মানুষ স্বাস্থ্যবিধি না মানলে, সামাল দিতে হিমসিম খেতে হবে। সোমবার গণপরিবহন চলাচল শুরু হলে, নগরীর রাস্তায় নগরবাসীর পদচারণা বাড়ার পাশাপাশি পুরনো চেহারা ফিরে পেতে শুরু করবে রাজধানী ঢাকা। তবে সবাই সচেতন না হলে করোনা সংক্রমণের হার আশঙ্কাজনক হতে পারে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন