শতাধিক ছিন্নমূল মানুষকে প্রতিদিন খাবার দিচ্ছেন ইমজা

0

কেউ ভবঘুরে, কেউবা ভ্রাম্যমান হকার, কেউ আবার পেটের দায়ে নিজেকেই বিক্রি করছেন অবলীলায়। এমন অনেকেই আছেন যাদের মাথাগোঁজার ঠাই নেই; করোনাকালে খোলা নেই অন্ন সংস্থানের বিকল্প কোন রাস্তা। এমন শতাধিক ছিন্নমূল মানুষকে প্রতিদিন খাবার দিচ্ছেন সিলেটের টেলিভিশন সাংবাদিকদের সংগঠন- ইমজা। শুধু তাই নয়; এদের অনেককে স্বাভাবিক পথে সমাজের মূল স্রোতে ফিরিয়ে আনতেও নেয়া হয়েছে বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টির কার্যক্রম।

নগরীর ক্বীনব্রিজ এলাকা। সন্ধ্যা নামতেই সাধারণ মানুষজন যখন ঘরে ফিরতে থাকেন ; তখনই প্রদীপের নীচে আলোহীন লোকজনের কোলাহল শুরু হয়। একেবারেই ছিন্নমূল এসব মানুষের জীবন ও জীবিকা অন্ধকারকে ঘিরে। করোনার এই সময়টাতে নিতান্তই মূলস্রোতের বাইরের এসব মানুষ বাড়িয়ে দিচ্ছে সংক্রমণের ঝুঁকি। এমন অন্ধকারে থাকা শতাধিক মানুষকে দেড় মাস ধরে অন্ন সংস্থানের ব্যবস্থা করে দিচ্ছে ইলেকট্রনিক মিডিয়া জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন- ইমজা।

নগরীর মদনমোহন কলেজে চলে রান্নার আয়োজন, পরে ক্বীনব্রীজ সংলগ্ন রাস্তায় এসব ছিন্নমূল মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দেয়া হয় খাবার। এ কাজে স্বেচ্ছায় এগিয়ে এসেছেন সংস্কৃতি কর্মীদের অনেকেই।

প্রতিদিন খাবারে প্রোটিন আর মিনারেলের বিষয়টিকে প্রাধান্য দেয়া হয়। রুটিন মাফিক মাছ, মাংস, ডিম এবং সব্জি খাবার হিসেবে পেয়ে খুশি এসব বাস্তুহারা মানুষও। এরই মধ্যে এমন মহতী উদ্যোগে সামিল হয়েছেন অনকেই। আয়োজকরা জানালেন, অপরাধে জড়িয়ে পড়া এসব মানুষকে বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে চলছে তৎপরতা। করোনা সংকটের শেষ পর্যন্ত এই উদ্যোগ চালিয়ে যাওয়া প্রত্যয় ইমজার সদস্যদের।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন