রাজনীতিবিদরা নয়, বিদেশে বেশি অর্থপাচার করেন সরকারি কর্মচারীরা : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

0

রাজনীতিবিদরা নয়, বিদেশে বেশি অর্থপাচার করেন সরকারি কর্মচারীরা বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, বিদেশে যদি কেউ বৈধভাবে টাকা নেয়, তাহলে কোনো আপত্তি নেই। তবে পাচার করলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির ‘মিট দ্যা রিপোর্টার্স’ অনুষ্ঠানে একথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন। এ সময় যুক্তরাষ্ট্রে নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন খুব পরিপক্ক রাজনীতিবিদ উল্লেখ করে নতুন মার্কিন প্রশাসনের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরো জোরদার হবে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

সাংবাদিকদের অন্যতম সংগঠন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি আয়োজিত ‘মিট দ্যা রিপোর্টার্স’ অনুষ্ঠানে যোগ দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন। এসময় বিদেশে টাকা পাচারের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, বিদেশে টাকা পাচারের বিষয়ে শুধু রাজনীতিবিদ নয়, সরকারি-কর্মচারীর সংখ্যাই বেশি। তিনি বলেন, অবৈধভাবে পাচারকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এসময় বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিদের ফিরিয়ে আনার বিষয়েও কথা বলেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রে নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের নতুন সরকারে সঙ্গে সম্পর্ক আরো জোরদার হবে বলেও জানান এ কে আব্দুল মোমেন।

বিদেশের কারাগারে বন্দি আট বাংলাদেশিকে ফেরত আনতে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হবে কিনা জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ওমান থেকে সহসাই দেশে আনা হবে তাদের।

আগামী ডিসেম্বরে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে ভার্চ্যুয়াল মিটিং হওয়ার কথা রয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, তিস্তার পানি বণ্টনসহ বিভিন্ন বিষয়ের সমস্যা সমাধানের বিষয়ে আশাবাদী বাংলাদেশ।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন