টুঙ্গিপাড়ায় ১৯২০ সালের এই দিনে জন্ম নেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

0

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় ১৯২০ সালের এই দিনে জন্ম নেন জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ৫১ বছর বয়সে যিনি বজ্র কণ্ঠে ঘোষণা দেন, বাঙ্গালির স্বাধীনতার। তাঁর নেতৃত্বের গুণ প্রকাশ পায় স্কুল জীবনেই। বাবা-মায়ের আদরের ‘খোকা’ একটি পরাধীন জাতিকে স্বাধীনতা এনে দিয়ে হয়ে ওঠেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি।

বাংলার এক নিভৃত পল্লীতেই তার জন্ম। বেড়েও উঠেন সাধারণ গ্রাম-বাংলার আর দশটি শিশুর মতো। আদরে আবদারে কোন কিছুতেই কমতি ছিলো না। কারণ সম্ভ্রান্ত শেখ পরিবারের সন্তান শেখ মুজিব।

শেখ মুজিবুর রহমানের চরিত্রের প্রতিবাদী দিকটি শৈশবেই সবার নজর কাড়ে। স্কুলজীবনে জড়িয়ে পড়েন রাজনীতিতে। অষ্টম শ্রেণিতে পড়ার সময় ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে যোগ দেয়ায় প্রথমবারের মত জেলে যান।

১৯৪৭ সালে ব্রিটিশ শাসনের অবসানের পর ঢাকায় ফিরে আসেন। এগিয়ে যান নতুন রাজনৈতিক চিন্তা-চেতনায় । ১৯৪৮ সালে গঠন করেন ছাত্রলীগ। ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন আওয়ামী মুসলীম লীগের যুগ্ম সম্পাদকের দায়িত্ব পান।

বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন, আটান্নর আইয়ুব বিরোধী আন্দোলন ও বাষট্টির শিক্ষা আন্দোলনে বারবার কারাগারে যেতে হয় তাকে। ১৯৫৪ সালে যুক্তফ্রন্ট সরকারের মন্ত্রিসভায় বাণিজ্যমন্ত্রী হয়েও মন্ত্রীর পদ ছেড়ে দলের সাধারণ সম্পাদকের পদ বেছে নিয়েছিলেন।

১৯৬৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে ঘোষণা করেন ঐতিহাসিক ছয় দফা। উনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে বাঙালি শেখ মুজিবকে কারামুক্ত করে ‘বঙ্গবন্ধু’ উপাধি দিয়ে সম্মানিত করে।

এরপর স্বাধীনতার ডাক, মুক্তিযুদ্ধ, বিজয় ও স্বাধীন বাংলাদেশ। সবকিছুর সাথেই মিশে আছে একটি নাম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন