মানবপাচারকারী চক্রের অন্যতম হোতা টুটুলসহ ৮ জন গ্রেফতার

0

মধ্যপ্রাচ্যে মানবপাচারকারী চক্রের অন্যতম হোতা টুটুল ও তার সহযোগী তৈয়বসহ ৮ জনকে গ্রেফতার করেছে রেব। সামান্য মুদি দোকানদার থেকে তিনটি ওভারসিজ এজেন্সির মালিক বনে গেছে এই টুটুল। বিদেশে চাকুরির প্রলোভন দেখিয়ে কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে মানব পাচার চক্রের এই হোতা। সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান রেব ৪ এর অধিনায়ক মোজাম্মেল হক।

মেহেরপুরের গাংনী থানার সাইফুল ইসলাম টুটুল। পড়াশোনার গন্ডি মাত্র এইচএসসি। অর্থের অভাবে বেশিদূর এগোয়নি লেখাপড়া। মুদি ব্যবসা দিয়ে কর্মজীবন শুরু তার। ঢাকায় আসা যাওয়ার মাঝে অধিক লাভের আশায় মানবপাচার চক্রেও জড়িয়ে পড়ে টুটুল।

শুরুতে চক্রের দালাল হিসেবে বিভিন্ন এজেন্সিতে বিদেশে লোক পাঠানোর কাজ করলেও পরে নিজেই খোলেন তিনটি ওভারসিজ প্রতিষ্ঠান।

এর পর আর তাকে পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। বেকার ও শিক্ষিত অর্ধ-শতাধিক নারী-পুরুষকে বিদেশে পাচার করে হাতিয়ে নেন কোটি টাকা।

পাচারচক্রের মুল হোতা টুটুলকে এই প্রতারণা সহযোগীতা করতেন মো. তৈয়ব আলীসহ বেশ কয়েকজন। তারা সারা দেশ থেকে বিদেশে চাকরি দেয়ার কথা বলে, মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে পাঠাতো। পরবর্তীতে ঐসব দেশে গিয়ে প্রতারিত হন ভূক্তভোগীরা।

ভূক্তভোগীদের অভিযোগে গেল রাতে রাজধানীর বাড্ডা লিংকরোডে টুটুল ওভারসিজ, লিমন ওভারসিজ ও লয়াল ওভারসিজে অভিযান চালিয়ে পাচার চক্রের মুল হোতা টুটুল, তৈয়ব, লিমন, হাসান, আলামিন ও আব্দল্লাহ আল মামুনকে গ্রেফতার করে রেব।

এসময়ে দুই নারীসহ ৪ ভিকটিমকে উদ্ধার, ১০টি পাসপোর্ট, ব্যাংকের চেক বই, ২টি কম্পিউটার, ৩টি লিফলেট এবং নগদ ১০ হাজার টাকা উদ্ধারের কথা জানান রেব-৪ এর অধিনায়ক।

বৈধ ও অবধৈ মানবপাচারে জড়িত কোন রিক্রুটিং এজেন্সির কাউকে ছাড় দেয়া হবে না বলে হুশিয়ারি দেন তিনি।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন