ভারত থেকে নিম্নমানের চা-পাতা দেশে প্রবেশ

0

ভারত থেকে অবৈধভাবে নিম্নমানের চা-পাতা দেশে প্রবেশ করায় হুমকির মুখে পড়েছে হবিগঞ্জের চা বাগানগুলো। প্রতিকেজি চা-পাতার মূল্য এখন নেমে এসেছে ২শ’ টাকারও নিচে। যা আগে ছিল ২৬০ থেকে ২৭০ টাকা। অপরদিকে, এ বছর উৎপাদন বাড়ায় চায়ের বাজার মূল্য নিয়ে বিপাকে বাগান কর্তৃপক্ষ।

আবহাওয়া অনূকূলে থাকায় গত বছরের তুলনায় এ বছর হবিগঞ্জের চুনারুঘাট, মাধবপুর ও বাহুবলের ২৪টি বাগানে চায়ের বাম্পার ফলন হয়েছে। তবে ভারত থেকে নিম্নমানের চাপাতা অবৈধভাবে বাংলাদেশে প্রবেশ করায় দেশীয় চা-পাতার মূল্য পড়তে শুরু করেছে। গেলবছর প্রতিকেজি চা গড়ে ২শ’ ৬০ থেকে ২৭০ টাকা দরে বিক্রি হলেও এবার তা কমে ২শ’ টাকার নিচে নেমে এসেছে। অবৈধ পথে ভারত থেকে চা পাতা আসা বন্ধ করা না গেলে বন্ধ হয়ে যাবার হুমকিতে পড়েছে হবিগঞ্জের চা শিল্প।

উৎপাদন বেশী হওয়ার পর চায়ের দাম আরো কমায় এখন হতাশ বাগান কর্তৃপক্ষ। অবৈধ পথে ভারতীয় চা আমদানী হওয়ায় বাংলাদেশের চা শিল্প লোকসানে পড়েছে বলে জানালেন বাগান কর্মকর্তারা।

চোরাচালান বিরোধী অভিযান চালিয়ে পুলিশ এরই মধ্যে বাজার থেকে বিপুল পরিমাণ ভারতীয় চা-পাতা জব্দ করেছে।

গত বছর হবিগঞ্জে প্রায় ৭৭ লাখ কেজি চা উৎপাদন হয়েছিল। চলতি বছরের মার্চ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত উৎপাদিত হয়েছে প্রায় ৯২ লাখ কেজি চা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন