আসন্ন ঈদে ব্যাপক লোকসানের আশঙ্কায় পশু খামারীরা

0

প্রতি বছর কোরবানির ঈদকে সামনে পশু বিক্রির অপেক্ষায় থাকে খামারীরা। এবার খামারীরা তাদের অতি যত্নে পালিত গরু বিভিন্ন হাটে বিক্রি করতে নিলেও সাড়া মিলছে না ক্রেতাদের। কারন বৈশ্বিক মহামারী করোনার প্রভাব পড়েছে ঈদুল আযহা উপলক্ষে পালিত গরুর ক্রেতা বিক্রেতাদের উপরও। ফলে ব্যাপক লোকসানের আশঙ্কায় দিন গুণছেন গরু পালনকারীরা।

ঈদুল আযহাকে কেন্দ্র করে মেহেরপুরের খামারিরা কোরবানির জন্য প্রস্তুত করেছে ৩৬ হাজার গরু। ৩৮৭টি বাণিজ্যিক খামার ছাড়া, পারিবারিকভাবেও অনেকে গরু পালন করেছে। বিচালি, চালের কুড়া, খৈল, কাঁচা ঘাস খাইয়ে গরু মোটাতাজা করেছে তারা। বিক্রির জন্য প্রস্তুত করা হলেও করোনার প্রভাবে ক্রেতাদের সাড়া মিলছেনা। হাটে তোলার অপেক্ষায় থাকলেও কোনো ব্যাপারি আসছে না। লক্ষ লক্ষ টাকা ব্যয়ে পালিত গরু বিক্রি না হওয়ার শঙ্কায় দিন কাটছে খামারিদের।

ব্যবসায়ীরা জানান, খামার ও কৃষকের কাছ থেকে গরু কিনে হাটে বিক্রির জন্য তোলা হলেও কোনো ক্রেতা পাচ্ছেনা তারা। করোনার মধ্যে পশুর চিকিৎসা ও ভ্যাকসিন কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে জানায়, প্রাণিসম্পদ বিভাগ।আসন্ন ঈদুল আযহায় দেশীয় পশু দিয়ে কোরবানির চাহিদা পূরণ সম্ভব বলে মনে করেন তারা

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন