বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামে প্রধানমন্ত্রীর তিন দফা প্রস্তাব পেশ

0

সমুদ্র ও অন্যান্য জলজ সম্পদের টেকসই ব্যবহারে বৈশ্বিক সহযোগিতা বৃদ্ধির জন্য তিন দফা প্রস্তাব পেশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিশ্ব সম্প্রদায়কে সমুদ্র ও জলজ সম্পদ রক্ষায় তাঁদের প্রতিশ্রুতি নবায়ন ও আন্তর্জাতিক সহায়তা বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। ভিডিও কনফারেন্সে সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের ‘ভার্চুয়াল মহাসাগর সংলাপ’এ তিনি এ আহ্বান জানান।

বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের আয়োজনে সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় চলছে মহাসাগর বিষয়ক সংলাপ। করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে ১ জুন শুরু হওয়া এ দীর্ঘ সম্মেলনের প্রতিটি অধিবেশনই হচ্ছে ভার্চুয়ালী।

‘শতকোটির পুষ্টি’ শীর্ষক সংলাপে, বুধবার রাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিডিও বার্তা প্রচার করা হয় উদ্বোধনী বক্তব্য হিসেবে। যাতে সমুদ্র ও অন্যান্য জলজ সম্পদের টেকসই ব্যবহারে বৈশ্বিক সহযোগিতা বাড়াতে তিনটি প্রস্তাব দেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, মহাসাগরের এবং অন্যান্য জলজ সম্পদের টেকসই ব্যবহার নিশ্চিতে, বিশেষ করে সম্পদ এবং পণ্যের বাজারে প্রবেশ এবং প্রযুক্তি সুরক্ষায় আন্তর্জাতিক সহযোগিতা বাড়াতে হবে। সামুদ্রিক সম্পদের পরিপূর্ণ সম্ভাবনাকে কাজে লাগানোর জন্য গুরুত্বপূর্ণ প্রয়োজনীয় সম্পদ, সক্ষমতা ও প্রযুক্তিসহ উন্নয়নশীল দেশগুলোকে সহায়তার আহ্বান জানান তিনি।

দ্বিতীয় প্রস্তাবে, আঞ্চলিক মাছের উৎপাদন উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি এবং অবৈধ, অননুমোদিত ও অনিয়ন্ত্রিত মাছ শিকার বন্ধের দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে মৎস্য উন্নয়ন বিষয়ে যৌথ গবেষণার কথা বলেন শেখ হাসিনা। তৃতীয় প্রস্তাবে উপকূলীয় বাসস্থান ও জীববৈচিত্র্য রক্ষায় মাছের উৎস চিহ্নিতকরণ এবং এর ব্যবস্থাপনার উপর জোর দেন তিনি।

সংলাপে করোনাভাইরাস মহামারী প্রসঙ্গ ধরে শেখ হাসিনা বলেন, মহাসাগরের এবং মানুষের স্বাস্থ্যের মধ্যে যে যোগসূত্র রয়েছে, তা নিয়ে এই মহামারী সবাইকে নতুন করে চিন্তা করতে বাধ্য করেছে।

বাংলাদেশের প্রায় সাড়ে ১৬ কোটি মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতে তার সরকারের সাফল্য তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভূমি ও সামুদ্রিক বাস্তুতন্ত্রে যথেষ্ট চাপ রয়েছে। মাছের মজুদের উপর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মারাত্মক উদ্বেগের কারণ বলেও তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন