বাংলাদেশকে দক্ষিণ এশিয়ায় একটি সমৃদ্ধশালী দেশ বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে সরকার

0

২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে দক্ষিণ এশিয়ায় একটি সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে দ্বিতীয় প্রেক্ষিত পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে সরকার। এ তথ্য জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সকালে বাংলাদেশের দ্বিতীয় প্রেক্ষিত পরিকল্পনার বাস্তবায়ন’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান। আলাদা অনুষ্ঠানে দমকল বাহিনীকে অগ্নি নিরোধক তিনটি ফায়ার কুশন হস্তান্তর করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বাংলাদেশের দ্বিতীয় প্রেক্ষিত পরিকল্পনা ২০২১-২০৪১: রূপগল্প ২০৪১ এর বাস্তবায়ন’ এর চূড়ান্ত বিষয়বস্তুর ওপর উপস্থাপনা পর্যবেক্ষণের আগে, সূচনা বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তিনি বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে দক্ষিণ এশিয়ার একটি উন্নত দেশ হিসেবে গড়তে চায় সরকার। আর সেই লক্ষ্য অর্জনে প্রথম ধাপের প্রেক্ষিত পরিকল্পনার দ্বিতীয় ধাপ বাস্তবায়ন করছে সরকার।

অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল, কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাকসহ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা।

পৃথক অনুষ্ঠানে অগ্নি দুর্ঘটনার সময় উদ্ধারকাজে ব্যবহারের জন্য জার্মানীর তৈরী অত্যাধুনিক তিনটি অগ্নি নিরোধক জাম্বু কুশন– ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের কাছে হস্তান্তর করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসেন প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে এসব যন্ত্র গ্রহণ করেন।

এসময় অগ্নি দুর্ঘটনায় উদ্ধার অভিযানকালে নিরাপত্তা ও সুরক্ষা বজায় রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী।

দমকল বাহিনীকে দেয়া এই অগ্নি নিরোধক কুশনগুলো ফাইবারগ্লাস দ্বারা তৈরী এবং এক মিনিটেই এসব ব্যবহার উপযোগী করা যায়।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন