বিভিন্ন জেলায় করোনা উপসর্গ নিয়ে ৭ জনের মৃত্যু

0

গেল রাতে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দু’জনের মৃত্যু হয়। এরপর এদের নমুনা সংগ্রহ করে স্বাস্থ্য বিভাগ। হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ইকবাল হোসেন জানান, সদর উপজেলার ফাজিলপুর এলাকার ৬০ বছরের এক বৃদ্ধ জ্বর, সর্দি-কাশিসহ শ্বাসকষ্ট নিয়ে আইসোলেশনে ভর্তি ছিলেন। রাতে হঠাৎ অবস্থার অবনতি হয়ে তার মৃত্যু হয়। অপরদিকে উপজেলার ধলিয়া ইউনিয়নের অলিপুর গ্রামে এক ব্যক্তি কাশি, শ্বাসকষ্ট ও ডায়রিয়ায় মারা গেছেন। রাতে তাকে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তির পরই তিনি মারা যান।
দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে মমতাজ আলী নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। গেল রাতে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। রাতেই তাঁর মালিপাড়া গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়। মানিকগঞ্জে করোনা উপসর্গ নিয়ে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তার বাড়ি দৌলতপুর উপজেলায়। মানিকগঞ্জ হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় সে । সকালে মানিকগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. আনোয়ারুল আমিন আখন্দ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, তার নমুনা সংগ্রহ করে সাভারে পাঠানো হয়েছে।

করোনা উপসর্গ নিয়ে মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার তালিমপুর ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদের মৃত্যু হয়েছে। গত ১০ থেকে ১২ দিন জ্বর, সর্দি ও শ্বাস কষ্টসহ নানা শারীরিক সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি । যশোর জেনারেল হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে সেলিনা বেগম নামে এক নারী করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। তার নমুনা পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, করোনা উপসর্গ নিয়ে মাদারীপুর সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে থাকা এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। আলমগীর হোসেন নামের ওই যুবক শনিবার করোনা উপসর্গ নিয়ে সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়। তার বাড়ি সদর উপজেলার কেন্দুয়া এলাকায়। মৃতের নমুনা সংগ্রহ করেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন