প্রবাসীরা ই-পাসপোর্ট পেতে যেন হয়রানির শিকার না হন

0

প্রবাসীরা ই-পাসপোর্ট পেতে যেন হয়রানির শিকার না হন,সেদিকে খেয়ার রাখার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা । সকালে, রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ই পাসপোর্ট সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করে এ নির্দেশ দেন তিনি। ই-পাসপোর্টের মাধ্যমে বাংলাদেশ আরো একধাপ এগিয়ে গিয়েছে মন্তব্য করে জনগণের ভোগান্তি কমবে বলেও আশাবাদ প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।

দক্ষিণ এশিয়ায় প্রথম এবং বিশ্বে ১১৯ তম ই পাসপোর্ট ব্যবহারকারী দেশের তালিকায় নাম লেখালো বাংলাদেশ। এর মাধ্যমে দ্রুততম সময়ে স্বয়ংক্রিয় ভাবে পাসপোর্ট রিডার ও ক্যামেরার সাহায্যে ই পাসপোর্ট যাচাই ও ফেশিয়াল রিকগনিশনের মাধ্যমে ইমিগ্রেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে।

সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ই-পাসপোর্ট ও স্বয়ংক্রিয় বর্ডার নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনা প্রবর্তন কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আলোচনার শুরুতেই পাসপোর্ট অধিদফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী। বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকীতে জনগণের জন্য উপহার এই ই-পাসপোর্ট ব্যবস্থা।

সরকারের প্রচেষ্টায় দেশে ডিজিটাল বিপ্লব সাধিত হয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ই-পাসপোর্টের কারনে আর কোন ভাবে প্রতারণার শিকার হবে না জনগণ৷

প্রবাসীদের পাঠানো অর্থেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে জানিয়ে পাসপোর্ট পেতে প্রবাসীরা যেন কোন হয়রানির শিকার না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন শেখ হাসিনা।

এ সময়, ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী হাতে তার অত্যাধুনিক ই-পাসপোর্টটি তুলে দেয়া হয়।

পরে, স্বয়ংক্রিয় বর্ডার নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনা ও ই-গেইট পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন