পৌষ উৎসব বাঙালির বহুকালের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য

0

পৌষ উৎসব বাঙালির বহুকালের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য। শীতের পিঠা-পায়েস, খেজুরের রস আর লোক সংস্কৃতির নানা উপকরণকে ঘিরে; গ্রামীন জনপদের উৎসের সেই আভা শহুরে জীবনে ছড়িয়ে দিতেই বাংলা একাডেমী প্রাঙ্গনে শুরু হয় তিন দিনের পৌষমেলা। শীতের কুয়াশায় মোড়ানো ভোরে আইলা জ্বালিয়ে মেলার উদ্বোধন করেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

সূর্যের আলো তখনো ফোটেনি।রাজধানীর প্রায় জনশূন্য পথে ও প্রান্তে কুয়াশা-ধোঁয়াশা জড়ানো আবছায়া। এমনি সময়ে আইলার উষ্ণতায় শীতের ভোরের জড়তা কাটিয়ে জমে ওঠে নাগরিক পৌষমেলা।

ঠেকি-কুলোসহ সমবেত নৃত্যের তালে উৎসবের উচ্ছ্বাস ছড়িয়ে পড়ে সবার মাঝে। পৌষসংক্রান্তিতে গ্রামের ঘরে ঘরে নতুন চালের পিঠা পায়েস আর খেজুরের রসে মৌতানে মেতে ওঠা বাঙালি অভ্যাস ধরে রাখতে একাডেমী প্রাঙ্গনে বসেছে অর্ধ শতাধিক পিঠার স্টল। দেশের বিভিন্ন প্রান্তের ঐতিহ্যবাহী পিঠা পরিবেশন করে খুশী বিক্রেতারা। বাহারি পিঠার স্বাদে মেতেছেন নগরীর আট-থেকে আশি সকলেই।

দেশজ সংস্কৃতি লালন করে প্রজন্মান্তরে পৌছে দিতেই একুশতম বারের মতো পৌষমেলার আয়োজন। নগরজীবনে হিম জড়ানো পৌষের ছোঁয়ার কমতি থাকলেও মেলাকে ঘিরে টানা তিনটি দিন নগরবাসী পাবেন আয়েশী ভোজনবিলাশী পৌষসংক্রান্তির আবহ।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন