পিকে হালদারের কথিত বান্ধবী অবন্তিকার ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

0

অবশেষে দুদকের গোয়েন্দা জালে ধরা পড়লেন আলোচিত অর্থ পাচাকারি পিকে হালদারের কথিত বান্ধবী অবন্তিকা বড়াল। সকালে দুদকের উপ-পরিচালক মো. সালাউদ্দিনের নেতৃত্বে একটি দল ধানমণ্ডি এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে। পরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৩ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করা হলে তা মঞ্জুর করে আদালত। অবন্তিকার এই গ্রেপ্তার পিকে হালদারের অর্থ পাচার মামলার গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি বলে মন্তব্য করেছেন দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। অবন্তিকার কাছে থেকে পিকের অর্থ পাচারের নেপথ্য সহযোগীদের নামসহ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানা যাবে বলেও মত দেন তিনি।

প্রায় ৩ হাজার ৬শ কোটি টাকা নিয়ে বিদেশে আত্মগোপনে থাকা পিকে হালদারের অন্যতম সহযোগী হিসেব যে নামটি সবচেয়ে বেশী আলোচিত তিনি অবন্তিকা বড়াল।

বুধবার ধাণমন্ডি থেকে গ্রেফতারের পর তাকে দুদক কার্যালয়ে এনে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। দুদক কর্মকর্তারা জানান, ধানমণ্ডি আবাসিক এলাকার ৬ নম্বর রোডে থাকা প্রায় ৪ কোটি ৩৫ লাখ টাকার ফ্ল্যাট জব্দ করেছে দুদক। কারণ অবন্তিকার ট্যাক্স রিটার্নে ছিল না সে সম্পর্কে কোন তথ্য। ধারণা করা হয় পিকের দেয়া টাকায় তিনি ওই ২ হাজার ৬০৩ বর্গফুটের ফ্ল্যাটটি কেনেন ।

এ সময় প্রশ্ন করা হলেও কোন উত্তর দেননি পিকে হালদারের আলোচিত এই বান্ধবী। পরে অবন্তিকা বড়ালকে নিয়ে ঢাকার চিফ মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে যান দুদক কর্মকর্তারা। জিজ্ঞাসাবাদের স্বার্থে তার ৩ দিনের রিমাণ্ড আবেদন করে দুদক। শুনানি নিয়ে রিমাণ্ড মঞ্জুর করে আদালত।

কেন এই গ্রেফতার এবং দুদকের উদ্দেশ্য কি তা জানতেই কথা হয় দুদক আইনজীবী খুরশীদ আলম খানের সঙ্গে।

গেল ২৮ ডিসেম্বর দুদকের তলবে হাজির না হওয়া অবন্তিকার বড় অপরাধ বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এই গ্রেফতার আলোচিত এই মামলার বড় অগ্রগতি, আরো অনেকেই দুদকের নজরদারিতে আছে বলেও মন্তব্য করেন খুরশীদ আলম খান।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন