নেত্রকোনায় এতিমের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে শিক্ষক ও কমিটির বিরুদ্ধে

0

নেত্রকোনায় সরকারিভাবে বরাদ্দকৃত এতিমের ২৩ লাখ ৬০হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও কমিটির বিরুদ্ধে। এতে ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এতিম শিশুরা। এ ব্যাপারে ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হয়নি সংশ্লিষ্টরা। এর সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানিয়েছেন, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

নেত্রকোনার মদন উপজেলায় মোট ছ’টি এতিমখানা মাদরাসা রয়েছে। এর মধ্যে প্রায় এক’শ ৮৫ এতিম শিশু পড়াশোনা করছে। প্রায় প্রতিটি প্রতিষ্ঠানেই এই শিশুদের জন্য অর্থ বরাদ্দ দেয় সরকার। ২০১৯-২০ অর্থ বছরে প্রথম ছ’মাসে ছ’টি এতিমখানা মাদ্রাসায় এতিম শিশুদের নামে ২৩ লাখ ৬০হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। এই টাকা শিক্ষকসহ কমিটির বিরুদ্ধে আত্মসাতের অভিযোগ করছে স্থানীয়রা।

এতিম শিশুদের মাথাপিছু মাসিক বরাদ্দ দু’হাজার টাকা।এর মধ্যে খাদ্যে-এক হাজার ছ’শ, পোশাকে-দু’শ, ওষুধ ও অন্যান্য খরচ বাবদ দু’শ টাকা ব্যয় করার কথা। তবে, এতিমখানায় ব্যবস্থা নেই বলে অনেকেই লজিং বাড়িতে খেয়ে থাকে। শিক্ষার্থীরা স্বীকার করলেও, এতিমখানার বিষয়ে কিছুই জানেনা এলাকাবাসী।

উপজেলার কয়েকটি এতিমখানায় শিশুদের উপস্থিতি তুলনামূলক কম দেখা গেছে। চাইলেও তাদের তালিকা দেখাননি মাদ্রাসা সুপার। এ বিষয়ে কমিটির কোনো সদস্য ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হননি।

উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা কোনো ব্যাখ্যা দিতে পারেননি। এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান।

তদন্তের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

উপজেলাবাসীর দাবি, এতিমদের ন্যায্য অধিকার ফিরিয়ে দিতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেবে সংশ্লিষ্টরা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন