নীলফামারীতে শুরু হয়েছে কাজু বাদামের প্রক্রিয়াজাতকরণ

0

নীলফামারীতে শুরু হয়েছে কাজু বাদামের প্রক্রিয়াজাতকরণ। রপ্তানি শুল্ক কমানো গেলে কৃষি অর্থনীতিতে কাজু বাদাম বড় ভূমিকা রাখবে বলে দাবি করছেন উদ্যোক্তারা। এদিকে, এর চাষ বাড়াতে ইতোমধ্যে প্রকল্প হাতে নিয়েছে কৃষি মন্ত্রণালয়।

দেশের পার্বত্য জেলা রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবানে চাষ হয় কাজু বাদাম। তবে, দেশে প্রক্রিয়াজাতের তেমন সুযোগ না থাকায় খুব কম দামে রপ্তানি করা হয়। বিদেশ ঘুরে প্রক্রিয়াজাত সেই কাজু বাদাম কয়েকগুন দামে আবার ফিরে আসে অভিজাত মানুষের খাদ্য তালিকায়।আশার কথা হলো, কাজু বাদামের প্রক্রিয়াজাত শুরু হয়েছে উত্তরের জেলা নীলফামারীতে। পাহাড় থেকে সংগৃহীত কাঁচা কাজু বাদাম কয়েকটি ধাপে প্রক্রিয়াজাত করা হচ্ছে দুটি কারখানায়। পাশাপাশি তৈরি হচ্ছে বিভিন্ন খাদ্য ও সৌন্দর্যবর্ধক পন্য।

স্থানীয়ভাবে তৈরি করা এসব বাটার, তেল ও পাউডারসহ কয়েকটি পন্য পাওয়া যাচ্ছে দেশের অভিজাত সুপার শপে। আন্তর্জাতিক বাজারে টিকে থাকতে শুল্ক কর কমানোর দাবি জানিয়েছে তরুন এই উদ্যোক্তা।

বাড়ির পাশের পতিত জমিতে স্বল্প পরিসরে কাজু বাদাম চাষের পরিকল্পনা নিয়েছে স্থানীয় কৃষি বিভাগ।

উৎপাদন বাড়াতে ভারত ও ভিয়েতনামের কাজু বাদামের জার্ম প্লাজম থেকে আনা চারা পাহাড়ি অঞ্চলে রোপনের উদ্যোগ নিয়েছে কৃষি মন্ত্রণালয়।

উদ্যোক্তাদের চেষ্টা ও সরকারের সহায়তায় কাজু বাদামের মাধ্যমে দেশের কৃষি অর্থনীতি শক্তিশালী হবে বলে আশা করে বিশেষজ্ঞরা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন