নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বৃদ্ধিতে নিম্ন আয়ের মানুষের নাভিশ্বাস

0

করোনা ভাইরাস সংক্রমনের আতংকে মৌলভীবাজারে চাল, পেঁযাজ, রসুনসহ নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। এতে নিম্ন আয়ের মানুষের নাভিশ্বাস নেমে এসেছে। চলচল বন্ধ হয়ে যাওয়ার আতঙ্কে বেড়েছে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা। কর্তৃপক্ষ বলছেন, কেউ যাতে মজুত করতে ও দাম বেশি নিতে না পারে সে জন্য নিয়মিত বাজার মনিটরিং করা হচ্ছে।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমন আতংকে মৌলভীবাজার জেলার পাঁচটি পৌরসভাসহ ৭টি উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে জিনিসপত্র কিনতে হুমরি খেয়ে পড়েছে মানুষ। আর এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে চাল. ডাল, লবন, পেঁয়াজসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে অসাধু ব্যবসায়ীরা।

গেলো এক সপ্তাহের ব্যবধানে সব ধরণের চাল কেজি প্রতি বেড়েছে ৫ থেকে সাত টাকা আর বস্তা প্রতি বেড়েছে ২০০ টাকা থেকে ৩০০টাকা। পেঁয়াজের দাম ৩৫ টাকা থেকে বেড়ে এক লাফে ৮০ থেকে ১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। সমান তালে বেড়েছে রসুন, লবন, আদা, আলু, সোয়াবিনসহ সব ধরণের নিত্যা প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম।

বাজার নিয়ন্ত্রণে সরকারের উদ্যোগের কমতি নেই। তবুও কেন জিনিসের দাম বাড়ছে তা খতিয়ে দেখা দরকার বলে জানান এই বিশেষজ্ঞ।

অসাধু ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে এবং হচ্ছে বলে জানালেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে নিয়মিত বাজার মনিটরিং করার কথা জানান ভোক্তা অধিকারের সহকারি পরিচালক।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন