ধার করে শিক্ষক এনে জোড়াতালি দিয়ে চলছে বরিশাল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম

0

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, শহীদ আব্দুর রব টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ এবং বরিশাল সরকারি পলিটেকনিক কলেজ থেকে ধার করে শিক্ষক এনে জোড়াতালি দিয়ে চলছে বরিশাল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম। কলেজের অধ্যক্ষের পদটিও শুরু থেকে শূন্য। বরিশাল পলিটেকনিক কলেজের অধ্যক্ষেই সেখানে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করছেন। নানামুখী সংকটে ঠিকমত ক্লাস তো দূরের কথা, ব্যবহারিক ক্লাসও হচ্ছে না। এ কারণে ভালো মানের ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের মাঝে হতাশা দেখা দিয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রযুক্তি ইউনিটের অধীনে ২০১৭ সাল থেকে বরিশাল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়। চার বছর মেয়াদী সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের দুটি বিভাগের তিন ব্যাচে সাড়ে ৩শ’শিক্ষার্থী পড়াশুনা করছে।শিক্ষক সংকটে শুরু হয়নি নেভাল আর্কিটেকচার এন্ড মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং, কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং ও ফুট ওয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্স।

শুরু থেকেই ৪৪ শিক্ষক এবং ৪৬ কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ দেয়ার কথা থাকলেও বর্তমানে মাত্র ৮ জন শিক্ষক দিয়ে চলছে কলেজটি। আর তৃতীয়-চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী নিয়োগ দেয়া হয়েছে আউট সোর্সিংয়ের মাধ্যমে। যাদের মেয়াদ শেষ হওয়ার পথে।

পর্যাপ্ত শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার সাথে সাথে ক্যাম্পাস প্রাণবন্ত করতে যা যা প্রয়োজন তা দেয়ার দাবি জানালেন শিক্ষার্থীরা।

ধার করা শিক্ষক দিয়ে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার বিষয়টি স্বীকার করে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বললেন, নতুন শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া চলছে।

কীর্তনখোলার অপর তীরে বরিশাল-ভোলা মহাসড়কের দুর্গাপুরে ৮ একর জমির উপর ৫৮ কোটি টাকা ব্যয়ে গড়ে তোলা হয়েছে বরিশাল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন