দুর্নীতি, মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নির্মূলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

0

দেশ ও জাতির অগ্রযাত্রাকে বেগবান করতে শত প্রতিকূলতার মাঝেও সুশাসন সুসংহতকরণ, গণতন্ত্র চর্চা ও উন্নয়ন কর্মসূচিতে সব স্তরের জনগণের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে সরকারের নিরলস প্রয়াস অব্যাহত রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ আব্দুল হামিদ। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ গড়ে তুলতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রেখে দেশ থেকে দুর্নীতি, মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নির্মূলের লক্ষ্যে আরও ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

সোমবার বিকেলে জাতীয় সংসদে শুরু হয় একাদশ জাতীয় সংসদের একাদশ ও শীতকালীন অধিবেশন। করোনা মহামারীর কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত সংখ্যক সংসদ সদস্য এতে অংশ নেন। যোগ দেন সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রথমেই প্রয়াত সংসদ সদস্য ও বিশিষ্ট ব্যক্তিদের স্মরণে শোক প্রস্তাব পাঠ করেন স্পিকার ডক্টর শিরিন শারমিন চৌধুরী।

নিয়মানুযায়ী বছরের প্রথম অধিবেশনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সংসদে ভাষণ দেন। ভাষণে সরকারের সাফল্যসহ উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ও ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরেন রাষ্ট্রপতি।

করোনা মোকাবিলা এবং স্বাস্থ্য, কৃষি ও শিল্পখাতকে চলমান রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রশংসা করে তিনি বলেন, তার নেতৃত্বে বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি আরও উজ্জ্বল হয়েছে।

দেশের আর্থ সামাজিক, প্রযুক্তি, অবকাঠামো, যোগাযোগ, শিক্ষাসহ প্রতিটি খাতে বিগত দশকে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে উল্লেখ করেন রাষ্ট্রপ্রধান। এই যাত্রাকে অব্যাহত রাখতে বিরোধী দলকে কার্যকর ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান তিনি।

দুর্নীতি, মাদক ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সরকার জিরো টলারেন্স নীতির উল্লেখ করে দল-মত-পথের পার্থক্য ভুলে শোষণমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানান তিনি।

রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সংসদে ধন্যবাদ প্রস্তাব উত্থাপিত হলে সাধারণ আলোচনায় অংশ নেবেন সংসদ সদস্যরা। অধিবেশনে বেশ কয়েকটি বিল পাসের সম্ভাবনাও রয়েছে। অন্যান্য বছর এ অধিবেশনটি দীর্ঘ হলেও করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার অধিবেশন সংক্ষিপ্ত হবে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন