দুর্ঘটনায় তূর্ণা নিশীথা এক্সপ্রেস ট্রেনের চালক সিগন্যাল মানেনি

0

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভয়াবহ রেল দুর্ঘটনায় তূর্ণা নিশীথা এক্সপ্রেস ট্রেনের চালক সিগন্যাল মানেনি এমন অভিযোগ করেছেন দুর্ঘটনায় কবলিত অপর ট্রেন উদয়ন এক্সপ্রেসের চালক আব্দুল কাইয়ুম। দুর্ঘটনায় নিহত ১৬ জনের মধ্যে হবিগঞ্জের ৬ জন, চাঁদপুর সদর ও হাজীগঞ্জ উপজেলার ৩ জন এবং মৌলভীবাজারের গৃহবধু জাহেদা বেগম। নিহতের সবার পরিচয় শনাক্ত শেষে মরদেহ হস্তান্তরের প্রক্রিয়া শুরু করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসন। এছাড়া আহত হয়েছে চাঁদপুর সদরের একই পরিবারের ৭ জন। নিহতদের বাড়ীতে চলছে শোকের মাতম। সায়ীকা সাম্মার ডেস্ক রিপোর্ট।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দবাগ রেল স্টেশনে তূর্ণা-নিশিথার চালক সিগনাল অমান্য করায় ভয়াবহ রেল দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করেছেন দুর্ঘটনা কবলিত উদয়ন এক্সপ্রেসের চালক আব্দুল কাইয়ুম।

এদিকে, রেলচলাচল ৭ ঘন্টা বন্ধ থাকার সিলেট থেকে ছাড়া উদয়ন এক্সপ্রেস চট্টগ্রামের পৌছনোর পর অতিরিক্ত একটি বগি লাগিয়ে ইঞ্জিন বদলে পাহাড়িকা হয়ে সাড়ে তিন ঘন্টা দেরিতে ফের সিলেট গেছে, জানিয়েছেন চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনের ম্যানেজার।

এদিকে,ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় দুই ট্রেনের সংঘর্ষের ঘটনায় শিশুসহ হবিগঞ্জের ৬ জন নিহত হয়েছে। এমন মৃত্যু কোন ভাবেই মেনে নিতে পারছে না স্বজনরা।

একই দুর্ঘটনায় নিহতদের মধ্যে চাঁদপুর সদর ও হাজীগঞ্জ উপজেলার ৩ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে চাঁদপুর সদরের একই পরিবারের ৭ জন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রেন দুর্ঘটনায় মৌলভীবাজারের গৃহবধু জাহেদা বেগম নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে তার দুই সন্তান।হতাহতের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।

এদিকে, ট্রেন দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত ১৩ জনকে মঙ্গলবার সকালে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে ১০ জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকায় বিভিন্ন হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। এছাড়া আহতদের চিকিৎসা খরচ কুমিল্লা জেলা পুলিশ বহন করবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন