ঢাকা টেস্টের নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ, ৩ উইকেটে ২৪০ রান টাইগারদের

0

বোলাদের পর ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তায় দ্বিতীয় দিন শেষ ঢাকা টেস্টের নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ। শান্ত-মমিনুলেন হাফ সেঞ্চুরিতে প্রথম ইনিংস বড় সংগ্রহ পথে স্বাগতিকরা। দিন শেষে ৩ উইকেটে ২৪০ রান টাইগারদের। ৭৯ রানে অপরাজিত মুমিনুল হক। দ্বিতীয় দিন শেষে ২৫ রানে পিছিয়ে বাংলাদেশ। তার আগে, আবু জায়েদ রাহীর ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে প্রথম ইনিংসে ২৬৫ রানে অলআউট জিম্বাবুয়ে।

এ যেন প্রথম দিনের পূনরাবৃত্তি আবু জায়েদ রাহীর। আগের দিন কেভিন কাসুজাকে দিয়ে শুরু করেছিলেন। এদিন শুরুটা করলেন ডোনাল্ড টিরিপানোকে দিয়ে। ৬ উইকেটে ২২৮ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন শুরু করা জিম্বাবুয়েনদের আর কোন সুযোগ দেয়নি টাইগারা বোলাররা। আবু জায়েদ রাহীর চতুর্থ শিকার হওয়ার আগে ছয় বল খেলেছেন ঠিকই। কিন্তু রানের খাতা খুলতে পারেননি আইনস্লে এনডিলোভু।এরপর তাইজুল ম্যাজিক। চার্লটন তাসুমাকে শূন্য রানে আর সফরকারীদের শেষ ভরসা রেগিস চাকাভাকে ৩০ রানে ফিরিয়েছেন এই স্পিনার। প্রথম ইনিংসে ২৬৫ রানে অলআউট জিম্বাবুয়ে। নাঈম হাসানের সমান চার উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের সেরা বোলার আবু জায়েদ রাহী।

জবাব দিতে নেমে জমেনি তামিম-সাইফ রয়াসন। এ দুয়ের ১৮ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙে সাইফ হাসানের ৮ রানের বিদায়ে। তবে নিরাশ করেননি নাজমুল হোসেন শান্ত। বিসিএলের ফর্মকে মিরপুরে আনলেন, তামিমের সঙ্গে গড়লেন ৭৮ রানের জুটি। ৪১ করে তামিম ফিরেছেন ততক্ষণে রেকর্ড বুকে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৩০০০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করলেন দেশ সেরা ওপেনার। সঙ্গী হারালেও পথ হারাননি শান্ত। তুলে নিয়েছেন টেস্ট ক্যারিয়ারে নিজের প্রথম ফিফটি। তবে, ৭১ রানের বিদায়ে আক্ষেপ ছিলো ম্যাজিক ফিগারের।

ঢাকা টেস্টে দ্বিতীয় দিনের বাকি সময়টায় আর কোন অঘটন হতে দেননি দুই অভিজ্ঞ মমিনুল হক ও মুশফিকুর রহিম। এ দুয়ের অবিচ্ছিন্ন ৬৮ রানে জুটিতে বড় স্বস্তি নিয়ে দিন শেষ করেছে বাংলাদেশ। মমিনুল ৭৯ আর মুশফিক অপরাজিত আছেন ৩২ রানে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন