ডুবে যাওয়ার ৩৬ ঘন্টার পর পাঁচজনের লাশ উদ্ধার

0

ডুবে যাওয়ার ৩৬ ঘন্টার পর পাঁচজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে আগুনমুখা নদীতে স্পীড বোট ডুবে তাদের মৃত্যু হয়।

সকাল সাড়ে ৬টা থেকে আগুনমুখা নদীর বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে আলাদা সময়ে মরদেহগুলো উদ্ধার করা হয়েছে ।রাঙ্গাবালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আলী আহমেদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। মরদেহ উদ্ধার করে কোড়ালিয়া লঞ্চঘাট এলাকায় রাখা হয়েছে। শনাক্তকরণ শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করার কথা রয়েছে। রাঙ্গাবালী ইউএনও মোহাম্মদ মাশফাকুর রহমান জানান, নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে স্পীডবোট চালানোই দুর্ঘটনার কারণ। চালকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। ১৮ জন যাত্রী নিয়ে স্পীডবোট রুমেন-১ কোড়ালীয়া থেকে পানপট্টির উদ্দ্যেশ্যে ছেড়ে যায়। মাঝপথে উল্টে গেলে যাত্রীরা নদীতে নিমজ্জিত হয়। সাঁতার কেটে ও স্থানীয়দের সহযোগীতায় চালক সহ ১৩ জন বাঁচলেও মারা যান এই পাঁচজন।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন