চট্টগ্রাম বন্দরে ভয়াবহ কন্টেইনার জটের আশংকা তৈরী

0

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে আমদানী পণ্য ডেলিভারি কমে যাওয়ায় চট্টগ্রাম বন্দরে ভয়াবহ কন্টেইনার জটের আশংকা তৈরী হয়েছে । ৫০ হাজার টিউস কন্টেইনার ধারণক্ষমতা সম্পন্ন ইয়ার্ডগুলোতে ইতিমধ্যে কন্টেইনারের সংখ্যা ৪৩ হাজার ছাড়িয়েছে। এই পরিস্থিতিতে উদ্বেগ জানিয়ে, দ্রুত পণ্য ডেলিভারি নিতে আমদানীকারকদের প্রতি আহবান জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। আর ব্যবসায়ীরা বলছেন, পরিস্থিতি মোকাবিলায় সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে।

আমদানী পণ্যভর্তি কন্টেইনার জাহাজ থেকে নামার পর বন্দরের ইয়ার্ডগুলোতে সংরক্ষন করা হয়। এখানেই কাস্টমস, সিএন্ডএফ এজেন্ট, শিপিং এজেন্টদের দাফতরিক কাজ শেষে ডেলিভারি নেন আমদানীকারকরা। এভাবেই চলে দেশের অর্থনীতির মেরুদণ্ড চট্টগ্রাম বন্দরের অপারেশন কাজ। কিন্তু করোনা ভাইরাসের প্রভাবে চিরচেনা সেই দৃশ্যপটে এসেছে পরিবর্তন। আমদানী পণ্য জাহাজ থেকে নামলেও আগের মতো ডেলিভারি হচ্ছে না । ফলে জটের আশংকা তৈরী হয়েছে ইয়ার্ডগুলোতে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, সরকারি নির্দেশে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার পাশাপাশি সিএন্ডএফ ও শিপিং এজেন্টসহ বন্দর সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো আগের মতো সচল না থাকায়, এই অবস্থার তৈরী হয়েছে।
চট্টগ্রাম বন্দরের চারটি গেইট দিয়ে ১০ দিন আগেও প্রতিদিন সাড়ে তিন হাজার থেকে চার হাজার কন্টেইনার ডেলিভারি হতো; এখন সেখানে কন্টেইনার ডেলিভারি হচ্ছে ৫ শো;র কম। ।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন